ঢাকা ও চট্টগ্রাম ওয়াসার বিল পরিশোধ বিকাশে

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৫৮ পিএম, ১১ মে ২০২০

ঢাকা ও চট্টগ্রাম ওয়াসার বিল এখন খুব সহজেই বিকাশে পরিশোধ করা যাবে। ফলে কোভিডের বিস্তার প্রতিরোধের এই সময়ে গ্রাহক কোথাও না গিয়ে ঘরে বসেই যেকোনো সময় নিজের এবং অন্যের পানির বিল পরিশোধ করতে পারবেন।

ঢাকা ওয়াসার ৩ লাখ ৮০ হাজার এবং চট্টগ্রাম ওয়াসার প্রায় ৭২ হাজার গ্রাহক কোন বাড়তি চার্জ ছাড়াই চলতি মাসের বিল বা বকেয়াসহ বিল বিকাশে পরিশোধ করতে পারবেন। ফলে ব্যাংকে গিয়ে লাইনে দাঁড়িয়ে বাড়তি সময় ও অর্থ ব্যয় না করেই সহজ, ঝামেলাহীন এবং নিরাপদে পানির বিল পরিশোধের সেবা নিশ্চিত হলো। গ্রাহক চাইলে তার পানির বিলের পরিমাণও বিকাশ থেকে চেক করে দেখতে পারবেন।

এছাড়াও বিল পরিশোধের সঙ্গে সঙ্গে তিনি পেয়ে যাবেন একটি ই-রশিদ যা ভবিষ্যৎ প্রয়োজনের জন্য সংরক্ষণ করতে পারবেন।

বিল পরিশোধ করতে বিকাশ অ্যাপের পে-বিল অপশন থেকে পানি এবং ঢাকা ওয়াসা বা চট্টগ্রাম ওয়াসা নির্বাচন করে বিলের মাস নির্বাচন করবেন। এরপর গ্রাহক তার বিল নম্বরটি দেবেন। পরে বিকাশ পিন দিয়ে বিল পরিশোধ সম্পন্ন করবেন।

তাৎক্ষণিকভাবেই বিল পরিশোধ হয়ে যাবে এবং গ্রাহক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ও বিকাশ লোগো সম্বলিত একটি ই-রশিদ পাবেন। গ্রাহক চাইলে তার বিল নম্বরটি বিকাশ অ্যাপে সংরক্ষণ করে রাখতে পারেন, যা ভবিষ্যতের বিল দেয়া আরো সহজ করবে।

*২৪৭# ডায়াল করে কিছু ইন্টারঅ্যাকটিভ ধাপ অনুসরণ করেও পানির বিল পরিশোধের সুযোগ রয়েছে বিকাশে।

উল্লেখ্য, বিকাশের মাধ্যমে সারাদেশের সবগুলো বিদ্যুৎ বিতরণ কোম্পানির প্রি-পেইড এবং পোস্ট-পেইড বিদ্যুৎবিল পরিশোধ করতে পারেন গ্রাহক। এছাড়াও গ্যাস, টেলিফোন, ইন্টারনেট, ডিটিএইচ, সিটি কর্পোরেশন ট্যাক্সসহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন ফিও বিকাশে পরিশোধের সুযোগ রয়েছে।

ব্র্যাক ব্যাংক, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক মানি ইন মোশন, বিশ্বব্যাংক গ্রুপের অন্তর্গত ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশন, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এবং অ্যান্ট ফিন্যান্সিয়ালের যৌথ মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান বিকাশ, ২০১১ সাল থেকে বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়ন্ত্রিত পেমেন্ট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিভিন্ন ধরনের ডিজিটাল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস দিয়ে আসছে।

এসএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]