জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের পদত্যাগে বাধ্য করছে ব্যাংক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৩৪ পিএম, ২৯ জুন ২০২০

বেশ কয়েকটি বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক অমানবিক সিদ্ধান্ত নিয়ে তাদের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের পদত্যাগপত্র জমা দিতে বাধ্য করছে বলে জানিয়েছে ব্যাংকার্স ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন বাংলাদেশ (বিডব্লিউএবি)। সম্প্রতি মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ও এবি ব্যাংক তাদের বেশ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাকে পদত্যাগে বাধ্য করে।

সোমবার (২৯ জুন) বিডব্লিউএবি এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানায়। ব্যাংকগুলোর এমন আচরণে উদ্বেগ জানিয়ে এ ধরনের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসতে ব্যাংকগুলোকে আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনটি।

সংগঠনের প্রেসিডেন্ট কাজী মো. শফিকুর রহমানের পাঠানো বিবৃতিতে বলা হয়, করোনা মহামারির এ দুঃসময়ে সম্প্রতি দু-তিনটি বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক অমানবিক সিদ্ধান্ত নিয়ে তাদের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের (যারা ১৫-২০ বছর ধরে ব্যাংকে সেবা দিয়ে আসছে) পদত্যাগপত্র জমা দিতে বাধ্য করছে। এ ধরনের পরিস্থিতির শিকার কয়েকজন ব্যাংক কর্মকর্তা তাদের অসহায়ত্বের কথা বিউব্লিউএবির কাছে জানিয়েছেন।

এ কর্মকর্তারা তাদের দীর্ঘ কর্মজীবনে আন্তরিকতার সঙ্গে সেবা দিয়েছে এবং ব্যাংকের বিকাশ ও উন্নয়নে ভূমিকা রেখেছে। তাদের ধারণা ছিল, ব্যাংকের স্বাভাবিক নিয়মে তারা অবসর গ্রহণ করবেন। কিন্তু হঠাৎ এ ধরনের সিদ্ধান্তে তারা গভীরভাবে মর্মাহত এবং অসহায় হয়ে পড়েছেন। বেসরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে মানবিক দৃষ্টিকোণ এবং কর্মকর্তাদের দীর্ঘ কর্মজীবনের অভিজ্ঞতা ও সেবার বিষয়টি বিবেচনা করে তাদের পদত্যাগের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা এবং কোনো কর্মকর্তাকে পদত্যাগে বাধ্য না করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানিয়েছে সংগঠনটি।

বিউব্লিউএবি বলছে, এ ধরনের সিদ্ধান্তের ফলে ব্যাংক কর্মকর্তারা হতাশ এবং কাজে আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। তারা দুশ্চিন্তাগ্রস্ত ও চাকরির নিরাপত্তাহীনতায় ভুগবে। ফলে ব্যাংকের স্বাভাবিক বিকাশ ও উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হবে। তদুপরি ওই ব্যাংকের মানবসম্পদ বিষয়ে নেতিবাচক মনোভাব তৈরি হবে। আমরা আশঙ্কা করছি, অন্য ব্যাংকের কর্মকর্তারা এ ধরনের ব্যাংকে যোগদান করতে ইচ্ছুক হবে না, এমনকি নতুন কর্মকর্তারাও যোগদানের বিষয়ে দ্বিতীয়বার ভাববেন। সর্বোপরি ওই ব্যাংকগুলোর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন হবে।

এসআই/এএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]