আইএফসি-ওমেরা পেট্রোলিয়ামের ২০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ চুক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৩৫ পিএম, ৩০ জুন ২০২০

বিশ্বব্যাংকের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স করপোরেশন (আইএফসি) ২০ মিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তা প্রদানের জন্য ওমেরা পেট্রোলিয়ামের সঙ্গে চুক্তিবব্ধ হয়েছে। সোমবার এ চুক্তি সই হয় বলে এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এতে জানানো হয়, আইএফসির পক্ষে কান্ট্রিপ্রধান (চলতি দায়িত্ব) নুজহাত আনোয়ার ও ওমেরার পক্ষে আকতার হোসেন সান্নামাত চুক্তিতে সই করেন।

কোভিড- ১৯ এর ফলে সৃষ্ট চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য আইএফসি এই আর্থিক সহায়তা প্রদান করবে ওমেরা পেট্রোলিয়ামকে। ওমেরা পেট্রোলিয়ামকে দ্বিতীয়বারের জন্য আইএফসি এই ঋণ সুবিধা দিতে যাচ্ছে। এই তহবিল ওমেরা এলপিজি আমদানি ঋণ পরিশোধে ব্যবহার করবে।

ওমেরা এলপিজির প্রধান অর্থ-কর্মকর্তা আকতার হোসেন সান্নামাত বলেন, আইএফসির বৈদেশিক মুদ্রার এই বিনিয়োগ ওমেরার জন্য খুবই উল্লেখ্যযোগ্য, যা কোম্পানির উৎপাদন ও বিক্রয় কার্যক্রম চলমান রাখতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। আইএফসির সাথে সম্পর্ক ও অংশীদারিত্ব খুবই দৃঢ় এবং আমরা আইএফসির সামাজিক ও পরিবেশগত দায়বদ্ধতা প্রতিপালনে সর্বদা প্রতিশ্রুতবদ্ধ।

তিনি বলেন, আইএফসির এই ঋণের মাধ্যমে এলপিজি সরবরাহের সক্ষমতা দ্বিগুণ হবে এবং প্রায় প্রত্যেক উপজেলায় এর প্রাপ্যতা নিশ্চিত হবে। এতে করে সারাদেশে বিশেষ করে প্রত্যন্ত অঞ্চলে এর সহজলভ্যতা নিশ্চিত করবে।

ওমেরা এলপিজি এমজেএল বাংলাদেশ লিমিটেডের সাবসিডিয়ারি কোম্পানি। ২০১৫ সালে এফএমও এবং বৃহত্তম এলপিজি কোম্পানি বিবি এনার্জির সাথে যৌথ উদ্যোগে ওমেরার যাত্রা শুরু হয়। বর্তমানে ওমেরার ৪টি এলপিজি উৎপাদন কারখানা রয়েছে। যার প্রধান টার্মিনাল মংলায় অবস্থিত। ওমেরার রয়েছে প্রায় ১০ হাজার টন ধারণক্ষমতা-সম্পন্ন স্টোরেজ ব্যবস্থা এবং দৈনিক ৬০ হাজার সিলিন্ডার রিফিলিংয়ের সক্ষমতা, ৩টি এলপিজি বহনকারী অত্যাধুনিক বার্জ ছাড়াও কোম্পানির রয়েছে ৩৪টি রোড ট্যাংকার। ওমেরা ২০১৯ সাল থেকে ভারতে এলপিজি রফতানি করে আসছে।

এমএএস/এমএআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]