সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসেও শেয়ারবাজারে দরপতন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৩১ পিএম, ১৬ জুলাই ২০২০

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) মূল্য সূচকের পতন হয়েছে। সেই সঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। এর মাধ্যমে টানা চার কার্যদিবস পতনের মধ্যে থাকল শেয়ারবাজার।

এদিন লেনদেন শেষে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ডিএসইএক্স আগের কার্যদিবসের তুলনায় ৯ পয়েন্ট কমে চার হাজার ৬৯ পয়েন্টে নেমেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই-৩০ সূচক ৬ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৩৬৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ ৪ পয়েন্ট কমে ৯৪৫ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ৫৮টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৭৪টির। আর ১৯৭টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

সূচকের এই পতনের দিনে ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণও কমেছে। দিনভর বাজারে লেনদেন হয়েছে ২২৫ কোটি ৯৭ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ২৬৭ কোটি ৮৩ লাখ টাকা। এ হিসাবে আগের কার্যদিবসের তুলনায় লেনদেন কমেছে ৪১ কোটি ৮৬ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের শেয়ার। কোম্পানিটির ১৪ কোটি ৭১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা জিনেক্স ইনফোসিসের ১৩ কোটি ৬৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ৯ কোটি ৬৯ লাখ টাকার লেনদেনের মাধ্যমে পরের স্থানে রয়েছে ইসলামী ব্যাংক।

এছাড়া লেনদেনের শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- গ্রামীণফোন, ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালস, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, হাক্কানি পাল্প, নাহি অ্যালুমিনিয়াম, ফাইন ফুডস এবং বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস।

অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই কমেছে ৪৪ পয়েন্ট। লেনদেন হয়েছে ৮ কোটি ৩ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ১৭৮ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ৪০টির, কমেছে ৫৭টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৮১টির।

এমএএস/এএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]