শেয়ার কারসাজি : দুই ব্যক্তি তিন প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৩৭ পিএম, ১৬ জুলাই ২০২০

কারসাজির মাধ্যমে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কাশেম ড্রাইসেলের শেয়ারের দাম অস্বাভাবিক বাড়ানোর সঙ্গে জড়িত থাকায় দুই ব্যক্তি ও তিন প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

জরিমানার শিকার দুই ব্যক্তি হলেন- মো. মাহমুদুজ্জামান এবং মো. মাহিবুল ইসলাম। আর তিন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে- নারায়ণ চন্দ্র পাল অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস, সোলায়মান রুবেল অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস এবং প্রাইম ইসলামি সিকিউরিটিজ।

বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল ইসলামের সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার (১৬ জুলাই) অনুষ্ঠিত কমিশন সভায় এ জরিমানার সিদ্ধান্ত হয়।

কমিশন সভা শেষে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মো. সাইফুর রহমান জানিয়েছেন, নারায়ণ চন্দ্র পাল অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস, সোলায়মান রুবেল অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটস, প্রাইম ইসলামি সিকিউরিটিজ, মো. মাহমুদুজ্জামান এবং মো. মাহিবুল ইসলাম ২০১৫ সালের অক্টোবর থেকে ২০১৬ সালের ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত কাশেম ড্রাইসেলের শেয়ার অস্বাভাবিক লেনদেন করেছে।

এই অস্বাভাবিক লেনদেনের মাধ্যমে কাশেম ড্রাইসেলের শেয়ারের দাম ৬৯ টাকা ৬০ পয়সা থেকে ১৩১ টাকা ৭০ পয়সায় উন্নিত করা হয়। অর্থাৎ শেয়ারের দাম বাড়ানো হয় ৮৯.২২ শতাংশ। অস্বাভাবিক লেনদেনের ফলে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অধ্যাদেশ, ১৯৬৯ এর সেকশন ১৭ (ই)(২), (৩) ও (৫) লঙ্ঘন হয়েছে।

এজন্য নারায়ণ চন্দ্র পাল অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটসকে তিন কোটি, সোলায়মান রুবেল অ্যান্ড অ্যাসোসিয়েটসকে ১০ লাখ, প্রাইম ইসলামি সিকিউরিটিজকে এক কোটি ৫০ লাখ এবং মো. মাহমুদুজ্জামান ও মো. মাহিবুল ইসলামকে ৩০ লাখ টাকা করে জরিমানা করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি।

এমএএস/এএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]