ব্যাংকপাড়ায় ঈদের আমেজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:২৪ পিএম, ০৩ আগস্ট ২০২০

ঈদুল আজহার ছুটি শেষ, খুলেছে অফিস-আদালত, ব্যাংক-বীমা, শেয়ারবাজার ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান। তবে ব্যাংকপাড়ায় এখনও কাটেনি ছুটির আমেজ। প্রথম দিন কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতি ছিল কম। যারা এসেছেন তাদের কাজের চাপও কম। গল্পগুজব আর ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ে কেটেছে সময়। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে আগের মতো কোলাকুলির দৃশ্য নেই। মহামারি করোনার কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অফিস করছেন সবাই।

সোমবার (৩ আগস্ট) রাজধানীর ব্যাংকপাড়া মতিঝিল, দিলকুশা ঘুরে দেখা গেছে এমন চিত্র।

Bank-2

ঈদের পর প্রথম কার্যদিবস সোমবার মতিঝিল ব্যাংকপাড়ায় নেই মানুষের ভিড়। ব্যাংকগুলোও অনেকটা ফাঁকা। কর্মকর্তারা অলস সময় পার করছেন। লেনদেন কার্যক্রমেও নেই ভিড়।

প্রথম দিনের কার্যক্রম প্রসঙ্গে জানতে চাইলে মতিঝিল সোনালী ব্যাংকের জেনারেল ম্যানেজার মোহাম্মদ মোদাচ্ছের হাসান জাগো নিউজকে বলেন, ঈদের ছুটির পর আজ ব্যাংক খুলেছে। গ্রাহক উপস্থিতি স্বাভাবিক দিনের তুলনায় অনেক কম। লেনদেনও কম হচ্ছে। বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া তেমন লেনদেন হচ্ছে না। সঞ্চয়পত্র, বিভিন্ন আমানত স্কিমের লেনদেন হচ্ছে। আমাদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের উপস্থিতিও কম। ৫০ শতাংশের মতো এসেছেন। অনেকে ছুটিতে আছেন বুধবার নাগাদ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে; তবে পুরোপুরি কার্যক্রম চালু হতে আগামী রোববার লেগে যাবে বলে তিনি জানান।

Bank-2

প্রাইম ব্যাংকের মতিঝিল শাখার ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ সালাউদ্দিন বলেন, জনগণের মধ্য থেকে এখন করোনা আতঙ্ক দূর হয়েছে। ঈদের আগে থেকেই লেনদেন স্বাভাবিকভাবে চলছে। ঈদ পরবর্তী ব্যাংকিং কার্যক্রমের প্রথম দিন হওয়ায় গ্রাহক উপস্থিতি কম ছিল আজ। দ্রুতই স্বাভাবিক হবে লেনদেন। গ্রাহক উপস্থিতি ধীরে ধীরে বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন এ ব্যাংকার।

এদিকে সবশেষ গত বৃহস্পতিবার অফিস হয়ে শুক্রবার থেকে তিনদিনের ঈদের ছুটি শুরু হয়। শনিবার পালিত হয় ঈদুল আজহা। রোববারও ছিল ঈদের ছুটি। যদিও শুক্র ও শনিবার দুদিন সাপ্তাহিক ছুটি।

এসআই/এনএফ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]