‘স্বাভাবিক’ বাজারে চড়া সবজি, সস্তা ইলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৩২ এএম, ০৭ আগস্ট ২০২০

ঈদের পর সাধারণত রাজধানীর বাজারগুলোতে সবজির ক্রেতা ও বিক্রেতার সংখ্যা কম থাকে। তবে করোনা মহামারির ঈদের পর সেই চিত্র এবার নেই। স্বাভাবিক সময়ের মতো বাজারে ক্রেতা-বিক্রেতারা সবজি ক্রয়-বিক্রয় করছেন। অবশ্য চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে সবধরনের সবজি। তবে তুলনামূলক কম দামে বিক্রি হচ্ছে ইলিশ।

শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজারের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, বিভিন্ন এলাকায় এক মাসের বেশি সময় ধরে বন্যা এবং ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে সারাদেশে সবজির উৎপাদন কমে গেছে। যার প্রভাব দাম বেড়েছে। ফলে রাজধানী ঢাকায় এখন সবজির দাম আকাশছোঁয়া।

বাজার ও মানভেদে এককেজি বেগুন কিনতে এখন খরচ করতে হচ্ছে ৭০-৯০ টাকা, যা মাসখানেক আগে ছিল ৪৫-৫৫ টাকায়। পেঁপের দাম কয়েকমাস ধরেই চড়া। প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৪৫ টাকায়। ক’দিন আগেও কাঁচকলা পাওয়া যেত ২০-২৫ টাকা হালি দরে। কিন্তু এখন এক হালি কলা কিনতে লাগছে ৩৫-৪০ টাকা।

এছাড়া বরবটি বাজারভেদে ৭০-৯০ টাকা, চিচিংগা ৫০-৬০ টাকা, কচুর লতি ৬০-৬৫ টাকা, পটল ও ঢেঁড়স ৪০-৪৫ টাকা, কাকরোল ৬০ টাকা, কচুর মুখি ৭০-৭৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

রামপুরার ব্যবসায়ী মিলন বলেন, ঈদের পর এবার বাজারের চিত্র অন্যবারের মতো না। এবার ঈদ করতে ঢাকা ছেড়ে গ্রামের বাড়িতে তুলনামূলক মানুষ কম গেছে। তবে বন্যার কারণে ঢাকার আশপাশের জেলা ও উত্তরাঞ্চলের অনেক জায়গায় সবজির ক্ষেত নষ্ট হয়েছে। যে কারণে দাম একটু বেড়েছে।

কারওয়ান বাজারের সবজির আড়ৎদার মোস্তফা কামাল বলেন, প্রতিদিন আমার দুই ট্রাক সবজি দরকার। কিন্তু এক ট্রাকও ঠিকমতো পাচ্ছি না। বন্যায় বড় ক্ষতি হয়ে গেছে।

রামপুরা বাজারে সবজি কিনতে আসা আরিফ বলেন, করোনার কারণে আয় অনেক কমে গেছে। একদিকে আমাদের আয় কমেছে, অন্যদিকে পণ্যের দাম চড়া। ফলে আমরা বড় সমস্যার মধ্যে আছি। বাজারে কোনো সবজিই এখন ৫০ টাকার কমে পাওয়া যাচ্ছে না।

এদিকে সবজির দাম বাড়লেও মাছের বাজারে কিছুটা স্বস্তি দিচ্ছে ইলিশ মাছ। বাজারে বড়, মাঝারি ও ছোট সাইজের প্রচুর ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে। দামও তুলনামূলক স্বস্তা।

বিভিন্ন বাজারে এক কেজির ওজনের ইলিশ মাছ বিক্রি হচ্ছে ৮৫০-৯০০ টাকা, যা কিছু দিন আগেও ছিল ১২০০-১৩০০ টাকা। ৭৫০-৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে ৬০০-৭৫০ টাকা কেজি দরে। আর আধাকেজি ওজনের প্রতি কেজি ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে ৪০০-৪৫০ টাকার মধ্যে।

খিলগাঁওয়ের ব্যবসায়ী জমির বলেন, এখন বাজারে ইংলিশ সস্তা। জেলের জালে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ছে। এ কারণে দাম কম। এর থেকে কম দামে ইলিশ পাওয়া যাবে না। কিছুদিন আগে যে ইলিশ ১২৫০ টাকা বিক্রি করেছি, এখন তা ৮৫০ টাকা।

খিলগাঁওয়ের বাসিন্দা আমিনুল বলেন, ঈদের আগে ১ কেজি ১০০ গ্রামের একটি ইংলিশ কিনেছিলাম ১২০০ টাকা কেজি দরে। আজ সেই ইলিশ ৮০০ টাকা কেজি কিনতে পেরেছি। আমার হিসেবে এখন ইলিশ মাছ সস্তায়। কারণে বাজারে এখন কোনো সবজি ৫০-৬০ টাকার নিচে পাওয়া যাচ্ছে না। সেখানে ইলিশের দাম কেজিতে ৪০০ টাকা পর্যন্ত কমেছে।

এমএএস/এমআরএম/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]