আলুর দামের লাগাম টানতে অভিযান চলছে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:০০ পিএম, ১৪ অক্টোবর ২০২০

পর্যাপ্ত মজুত থাকা সত্ত্বেও হঠাৎ করে কোনো কারণ ছাড়াই লাফিয়ে বাড়ছে আলুর দাম। মাসের ব্যবধানে আলুর দাম দ্বিগুণ বেড়ে এখন খুচরা বাজারে ৫৫ থেকে ৬০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বুধবার (১৪ অক্টোবর) রাজধানীর পাইকারি ও খুচরা বাজারে আলুর দাম নিয়ন্ত্রণে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

অধিদফতরের প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. মাসুম আরেফিন জাগো নিউজকে জানান, আলু, পেঁয়াজ, চালসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য যৌক্তিক মূল্যে বিক্রি হচ্ছে কি-না, তা মনিটরিং করতে অধিদফতরের পাঁচটি টিম রাজধানীর খুচরা ও পাইকারি বাজারে অভিযান পরিচালনা করছে। এর মধ্যে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বাজার মনিটরিংয়ের দুটি টিম কাজ করছে। যারা অনৈতিকভাবে বাজারে নিত্যপণ্যের দাম বাড়াবে তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী জরিমানা ও শাস্তির ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে অভিযান পরিচালনা করছেন সহকারী পরিচালক প্রণব কুমার প্রামাণিক ও মাগফুর রহমান। তারা জানান, আজকে কারওয়ান বাজারে পাইকারি প্রতিকেজি আলু ৪২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে অভিযানকালে অনেক পাইকারি আলু বিক্রেতাকে পাওয়া যায়নি। তাদের মূল্য তালিকায় ৪২ টাকা লেখা আছে। সম্ভবত অভিযানের খবর শুনে দোকান রেখে পালিয়ে গেছেন তারা। অভিযানকালে বেশি দামে আলু পেঁয়াজ বিক্রি করায় ৩ ব্যবসায়ীকে ১২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, বর্তমানে বাজারে বিক্রমপুর আলু খুচরায় প্রতিকেজি ৫৫ থেকে ৫৮ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর রংপুর ও রাজশাহীর আলুর কেজি ৫৮ থেকে ৬০ টাকা। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আলুর দাম বাড়ার পেছনে সিন্ডিকেট ব্যবসায়ীদের কারসাজি রয়েছে।

দেশে এবার রেকর্ড পরিমাণ আলু উৎপাদন হয়েছে। সারাবছর দেশে প্রায় ১ কোটি লাখ টন আলুর চাহিদা রয়েছে। বিপরীতে উৎপাদন হয়েছে ১ কোটি ২০ লাখ টন। অর্থাৎ, চাহিদার তুলনায় দেশে বেশি আলু উৎপাদন ও মজুত রয়েছে।

তবে এবার করোনাকালে ত্রাণ হিসেবে চালের সঙ্গে আলু বিতরণ করা হয়। এছাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পেও ত্রাণ হিসেবে যাচ্ছে আলু। এ বছর করোনার কারণে আলু রফতানি করা যায়নি। দেশেই ব্যবহার বেড়েছে। তবে সঙ্কটের মতো পরিস্থিতি তৈরি হয়নি।

এসআই/এমএসএইচ/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]