নতুন বছরে ৪ গন্তব্যে ফ্লাইট চালু করবে ইউএস-বাংলা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১১:২২ পিএম, ২২ নভেম্বর ২০২০

নতুন বছরের শুরুতে দুবাই, আবুধাবি, শ্রীলংকা ও মালদ্বীপ রুটে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করবে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স। এছাড়া জুলাইয়ে ইন্দোনেশিয়াসহ আরও কয়েকটি দেশে ফ্লাইট পরিচালনার পরিকল্পনা রয়েছে সংস্থাটির।

রোববার (২২ নভেম্বর) পর্যটননগরী কক্সবাজারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের প্রধান নিবার্হী কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন (অব.) শিকদার মেসবাহউদ্দিন আহমেদ।

তিনি বলেন, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার আন্তর্জাতিক রুটগুলোকে নির্বিঘ্ন করতে ইউএস-বাংলা বিমান বহরে আরও দুটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এছাড়া বিমান বহরে দুটি ব্র্যান্ড নিউ এটিআর৭২-৬০০ যুক্ত করে যশোর-চট্টগ্রাম, সৈয়দপুর-কক্সবাজার এবং সিলেট-চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন অভ্যন্তরীণ রুটের পরিকল্পনা করছে ইউএস-বাংলা কর্তৃপক্ষ।

শিকদার মেসবাহউদ্দিন বলেন, করোনা মহামারি সময় বিভিন্ন দেশে আটকে পড়া বাংলাদেশিদের ফিরিয়ে আনতে দুবাই, আবুধাবি, দিল্লি, চেন্নাই, মালে, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, সিঙ্গাপুর,হ্যানয় ও ফ্রান্সের প্যারিস শহর বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ১০০টিরও অধিক স্পেশাল ফ্লাইট পরিচালনা করেছে ইউ-এস বাংলা এয়ারলাইন্স।

তিনি বলেন, নানাবিধ সমস্যায় জর্জরিত এভিয়েশন অ্যান্ড ট্যুরিজম ইন্ডাস্ট্রিজ। বিভিন্ন সময় বাংলাদেশের এভিয়েশন খাতকে বাঁচিয়ে রাখতে সরকারের সহায়তার জন্য আবেদন করেছে বেসরকারি এয়ারলাইন্স। বিশেষ করে অ্যারোনোটিকাল ও নন-অ্যারোনটিক্যাল চার্চকে সহনীয় পর্যায়ে নিয়ে আসা, জেট ফুয়েল কষ্টকে আন্তর্জাতিক মানদণ্ডে নিরূপণ করা, প্যাসেঞ্জার এয়ারলাইন্সের জন্য হ্যাঙ্গার সুবিধা বৃদ্ধি ইত্যাদি। প্রতিযোগিতার স্বার্থে জাতীয় বিমান সংস্থার সাথে বেসরকারি এয়ারলাইন্সের লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করা একান্ত প্রয়োজন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের জিএম (জনসংযোগ) মো. কামরুল ইসলাম, ক্যাপ্টেন সাদাত ও ক্যাপ্টেন মাসুদ।

এমইউ/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]