মোশাররফ বললেন ‘মন্ত্রণালয় যদি থাকে, চেয়ারম্যান ইন কাভার’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:০৭ পিএম, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১

আগামী ১ মার্চ অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জাতীয় বীমা দিবসের অনুষ্ঠানের মঞ্চে উপস্থিত থাকা এবং বক্তব্য দেয়ার সুযোগ না পাওয়ার বিষয়ে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) চেয়ারম্যান ড. এম মোশাররফ বলেছেন, ‘মন্ত্রণালয় যদি থাকে, চেয়ারম্যান ইন কাভার।’

শনিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) মতিঝিলে অবস্থিত আইডিআরএ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

সম্প্রতি জাগো নিউজে ‘অযোগ্যকে সিইও নিয়োগে আইডিআরএ চেয়ারম্যানের ক্ষমতার অপব্যবহার’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। এছাড়া ডেল্টা লাইফ থেকে আইডিআরএ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবি করার অভিযোগ তোলা হয়েছে।

সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকে এসব অনিয়ম ও দুর্নীতির সত্যতা যাচাইয়ে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এর প্রেক্ষিতে জাতীয় বীমা দিবসের অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন আইডিআরএ চেয়ারম্যান।

আগামী ১ মার্চ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত জাতীয় বীমা দিবসের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চ্যুয়ালি যুক্ত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে সভাপতিত্ব করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

এ বিষয়ে সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে প্রশ্ন করা হয়, জাতীয় বীমা দিবসের মতো একটি অনুষ্ঠানে নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইডিআরএ’র চেয়ারম্যান বক্তব্য দেয়ার সুযোগ পাচ্ছেন না। কী কারণে এমন পরিস্থির সৃষ্টি হলো?

উত্তরে মোশররফ হোসেন বলেন, ‘প্রোগ্রামটা হবে ভার্চ্যুয়ালি এক ঘণ্টার। সেখানে কিন্তু মন্ত্রণালয় যদি থাকে, চেয়ারম্যান ইন কাভার। আমাদের মন্ত্রণালয় তো রয়েছে, সো উই আর হ্যাপি। হ্যাপি আওয়ার মিনিস্ট্রি অ্যান্ড দ্যা আপার হ্যান্ড।’

এসময় সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে পাল্টা প্রশ্ন করা হয়, মন্ত্রণালয় থাকলেই আইডিআরএ চেয়ারম্যানের থাকা হয়ে যাবে, এটা কতোটা যুক্তিসংগত? এর উত্তরে আইডিআরএ চেয়ারম্যান বলেন, ‘কে কোথায় থাকল, কে কোথায় বসল, দ্যাটস নট দ্য ইস্যু। ইস্যু ইজ দ্য প্রোগ্রাম।’

এদিকে সম্প্রতি ডেল্টা লাইফ থেকে মোফাররফ হোসেনের বিরুদ্ধে ঘুষ দাবি করার অভিযোগ তুলে এক সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, বিভিন্ন বিষয় সমাধানের জন্য বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানের সঙ্গে আলোচনা করতে গেলে তিনি কোম্পানির নিকট প্রথমে ২ কোটি, পরবর্তীতে ১ কোটি ও সর্বশেষ ৫০ লাখ টাকা উৎকোচ দাবি করেন। এ সংক্রান্ত অডিও ক্লিপ ও ট্রান্সক্রিপটি দুর্নীতি দমন কমিশনে অভিযোগ আকারে দাখিল করা হয়েছে। পরবর্তীতে এ বিষয়ে হাইকোর্ট অধিকতর তদন্ত করার আদেশ দিয়েছেন।

ডেল্টা লাইফ থেকে ঘুষ চাওয়ার এই অভিযোগ সম্পর্কে প্রশ্ন করা হলে আইডিআরএ চেয়ারম্যান বলেন, ‘উই আর ড্রাইভিং স্মার্ট। রেগুলেটরি বিকামস দ্য স্মার্টার। আমার বলতে লজ্জ্বা লাগছে যে, ৩৪ কোটি টাকা সরকারের ভ্যাট ফাঁকি দিয়ে মামলাতে পড়ে গেল, সেটা নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসা করবেন।’ সম্প্রতি ডেল্টা লাইফের বরুদ্ধে ৩৫ কোটি টাকা ফাঁকি দেয়ার প্রমাণ পেয়েছে ভ্যাট গোয়েন্দা অধিদপ্তর।

সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে আরও প্রশ্ন করা হয়, সম্প্রতি শেয়ারবাজারে বীমার শেয়ার নিয়ে বেশ কিছু ঘটনা ঘটেছে। আইডিআরএ’র একাধিক প্রজ্ঞাপনে বীমার শেয়ার দাম বাড়ার ক্ষেত্রে প্রভাব পড়েছে। ফলে অভিযোগ উঠেছে আইডিআরএ চেয়ারম্যানের সঙ্গে কারসাজি চক্রের সম্পর্ক রয়েছে।

এই প্রশ্নের উত্তরে মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘আমাদের এখানে ৩২ জন নিয়ে এতো বড় সেক্টর রেগুলেট করে। ক্যাপিটাল মার্কেট, ইয়েস আই ওয়াজ ইন ক্যাপিটাল মার্কেট, দ্যাট ইজ নো ডাউট অ্যাবাউট ইট। এটা অবশ্য আমি শুনি, মাঝে মধ্যেই আমাদের কাছে আসে। এ জন্য বলেছি ইউ আর টু হেল্প আস আউট, ইন গিভ ইন দ্য গুড কন্ট্রিবিউশন টু আওয়ার ইকোনমি।’

তিনি আরও বলেন, ‘ওটাতে সুযোগ নাই। আমার নিজের পোর্টফোলিও যেটা আছে, ওটা দেখারই সুযোগ হয় না। এটা রিউমার। রেগুলেটরকে আপনাদের হেল্প করতে হবে। কারণ রেগুলেটর যখনই আপনার অনিয়ম ধরতে যাবে, হ্যা কোনো অনিয়ম ধরবো না, সবাই ফ্রেন্ড হয়ে যাবে। অনিয়ম ধরলেই কিন্তু কিছু চলে আসবে।’

এমএএস/এমএইচআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]