তৈরি পোশাকে প্রবৃদ্ধি অব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:১০ এএম, ০৭ এপ্রিল ২০২১

চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে মার্চ এই ৯ মাসে পণ্য রফতানি করে বাংলাদেশ ২ হাজার ৮৯৩ কোটি ৮৩ লাখ ৫০ হাজার ডলার আয় করেছে। মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) হালনাগাদ প্রতিবেদন এ উঠে আসে এমন তথ্য।

এতে দেখা যায়, বরাবরের মতোই নিট পণ্যের রফতানি ভালো হলেও উভেন পণ্য নেতিবাচক অবস্থানে আছে। ২০২০-২০২১ অর্থবছরের ৯ মাসে ২ হাজার ৩৪৮ কোটি ডলারের তৈরি পোশাক রফতানি হয়েছে। এর মধ্যে ১ হাজার ২৬৫ কোটি ডলারের নিট পণ্যের রফতানি হয়েছে।

নিট পণ্যের এই রফতানি গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ৫ দশমিক ৮৫ শতাংশ বেশি। ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের ৯ মাসে ১ হাজার ১৯৫ কোটি ডলারের নিট পণ্য রফতানি হয়।

চলতি অথবছরের এই ৯ মাসে ১ হাজার ৮৩ কোটি ডলারের উভেন পণ্য রফতানি হয়েছে। যা গত অর্থ বছরের একই সময়ের তুলনায় ১০ দশমিক ৮৩ শতাংশ কম।

চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে ৯৫ কোটি ডলারের পাট ও পাটজাত পণ্য রফতানি করেছে বাংলাদেশ। যা গত বছরের একই সময়ে ছিল ৭৭ কোটি ডলার। বার্ষিক হিসাবে ২২ শতাংশ এবং লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১০ শতাংশ প্রবৃদ্ধি রয়েছে এই খাতে।

একই সময়ে হোম টেক্সটাইল পণ্য রফতানি হয়েছে ৮৪ কোটি ডলারের। গত অর্থবছরের একই সময়ে রফতানি হয়েছিল মাত্র ৫৯ কেটি ডলারের হোম টেক্সটাইল পণ্য। এক্ষেত্রে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৯ শতাংশ বেশি রফতানি হয়েছে।

অল্প হলেও প্রবৃদ্ধি অর্জিত হয়েছে চামড়াজাত পণ্য রফতানিতে। এই সময়ের মধ্যে ৬৭ কোটি ডলারের চামড়াজাত পণ্য রফতানির টার্গেট নিয়ে ৬৮ কোটি কোটি ডলারের পণ্য রফতানি করা গেছে।

গত বছরের জুলাই-মার্চ এই ৯ মাসের তুলনায় চলতি অর্থবছরের একই সময়ে বাই সাইকেল রফতানি প্রবৃদ্ধি হয়েছে ৪২ দশমিক ১৯ শতাংশ। এছাড়া রফতানিতে ৩৭ দশমিক ৯৭ শতাংশ, হিমায়িত মাছে ৪৩ দশমিক ৩৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হয়েছে।

এসএম/এমআরএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]