ডিএসইতে আবার প্রি-ওপেনিং শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:০৮ এএম, ২২ এপ্রিল ২০২১

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) আবারও শুরু হচ্ছে প্রি-ওপেনিং। এর ফলে লেনদেন শুরু হওয়ার ১৫ মিনিট আগেই বিনিয়োগকারীরা ক্রয় বা বিক্রয় আদেশ বসাতে পারবেন। এত দিন এটি বন্ধ ছিল।

বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) থেকে নতুন নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত এ নিয়ম চালু থাকবে বলে জানিয়েছে ডিএসই। বৃহস্পতিবার থেকে এটি শুরু হচ্ছে।

ডিএসই থেকে জানানো হয়েছে, শেয়ারবাজারে মূল লেনদেন হবে ১০ থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত বা আড়াই ঘণ্টা। এই লেনদেন শুরুর আগে ৯টা ৪৫ মিনিট থেকে ১০টা পর্যন্ত প্রি-ওপেনিং সেশন। এই সময়ে লেনদেন হবে না। তবে বিনিয়োগকারীরা কি দামে শেয়ার কিনবেন বা বিক্রি করবেন তার আদেশ বসাতে পারবেন।

অপরদিকে দুপুর সাড়ে ১২টায় নিয়মিত লেনদেন শেষ হওয়ার পর ১৫ মিনিট পোস্ট ক্লোজিং সেশন থাকবে। এই ১৫ মিনিটে বিনিয়োগকারীরা কোনো নতুন দাম প্রস্তাব করতে পারবেন না। তবে কেই চাইলে ক্লোজিং প্রাইজে ক্রয় বা বিক্রয় করতে পারবেন।

আগে থেকেই শেয়ারবাজারে এই নিয়ম চালু রয়েছে। তবে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকার চলমান বিধিনিষেধ আরোপ করলে শেয়ারবাজারে লেনদেনের সময় কমে আসে। সে সময় বিএসইসি প্রি-ওপেনিং বন্ধ করে দেয়।

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বাড়ায় গত ৫ এপ্রিল থেকে সরকার এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন দিলে ব্যাংক লেনদেনের সময় সকাল ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা নির্ধারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

তার প্রেক্ষিতে শেয়ারবাজারের লেনদেন সময় নির্ধারণ করা হয় সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত। এ সময় প্রি-ওপেনিং বন্ধ করে দেয়া হয়। এরপর ব্যাংকের লেনদেন আধাঘণ্টা বাড়ানো হলে শেয়ারবাজারের লেনদেন সময় আধাঘণ্টা বাড়িয়ে সাড়ে ১২টা নির্ধারণ করা হয়। তখনও প্রি-ওপেনিং বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এরপর ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে সরকার। পরবর্তী এই বিধিনিষেধের মেয়াদ বাড়িয়ে ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত করা হয়েছে। প্রথমে ১৪ থেকে ২১ এপ্রিল পর্যন্ত ব্যাংকের লেনদেন বন্ধ ঘোষণা করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এরপর শেয়ারবাজারের লেনদেন ও বন্ধ ঘোষণা করা হয়।

কিন্তু পরবর্তীতে বিশেষ প্রয়োজনে ব্যাংকিং সেবা নিশ্চিত করার জন্য মন্ত্রীপরিষদ থেকে বাংলাদেশ ব্যাংককে চিঠি দেয়া হয়। এর প্রেক্ষিতে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ব্যাংক লেনদেনের সময় নির্ধারণ করে দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। ব্যাংক খোলার সিদ্ধান্ত আসার পর শেয়ারবাজারেও লেনদেন চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় বিএসইসি।

এমএএস/জেডএইচ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]