সোনালী ব্যাংক ও পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের মধ্যে ঋণ চুক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪১ এএম, ১৯ মে ২০২১

রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী ব্যাংক লিমিটেড ও পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের (পাবক) মধ্যে পাঁচ হাজার ৪৩০ কোটি টাকার একটি ঋণ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। ঋণের অর্থ ব্যবহার করে দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত দেশের তৃতীয় সমুদ্রবন্দরের রাবনাবাদ চ্যানেলের ক্যাপিটাল ও মেইনটেন্স ড্রেজিং সম্পন্ন হলে সর্বোচ্চ ৪০ হাজার মেট্রিক টনের জাহাজ বিভিন্ন দেশ থেকে এই বন্দরে ভিড়তে পারবে এবং বিপুল পরিমাণ রাজস্ব আহরণ সম্ভব হবে।

সোনালী ব্যাংকের প্রধান কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এই চুক্তিতে সোনালী ব্যাংকের পক্ষে ব্যাংকের সিইও অ্যান্ড ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. আতাউর রহমান প্রধান এবং পায়রা বন্দরের পক্ষে চেয়ারম্যান কমোডোর হুমাযুন কল্লোল চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

মো. আতাউর রহমান প্রধান পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষকে এই ঋণ দ্রুততম সময়ের মধ্যে প্রদানের বিষয়ে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

পাবক চেয়ারম্যান কমোডোর হুমায়ুন কল্লোল বলেন, পায়রা বন্দর দেশের দক্ষিণাঞ্চলের অর্থনৈতিক ও কাঠামোগত উন্নয়নে সক্রিয় ভূমিকা রাখবে।

অনুষ্ঠানে পাবক সদস্য এম এম মামুনুর রশীদ, কমোডোর রাজীব ত্রিপুরা , কমান্ডার রাফিউল হাসান, পাবক কনসালট্যান্ট শেখ মাহামুদুল হাসান, প্রকল্প পরিচালক ক্যাপ্টেন মুহাম্মদ মুনিরুজ্জামানসহ দুই প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে গত ১৫ মার্চ অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড এবং পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষের মধ্যে এক ত্রিপক্ষীয় ঋণ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। রিজার্ভ থেকে সোনালী ব্যাংকের মাধ্যমে পায়রা বন্দর কর্তৃপক্ষকে পাঁচ হাজার ৪৩০ কোটি টাকা দেয়ার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

ইএআর/এআরএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]