টানা দ্বিতীয় দিন পতনে শেয়ারবাজার, বেড়েছে লেনদেন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৫৬ পিএম, ২৭ জুলাই ২০২১

আগের কার্যদিবসের ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবারও (২৭ জুলাই) দেশের শেয়ারবাজারে দরপতন হয়েছে। এর মাধ্যমে টানা দুই কার্যদিবস পতনের মধ্যে থাকল শেয়ারবাজার। অবশ্য এই দরপতনের মধ্যেও বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ।

আগের কার্যদিবসের মতো আজও বেশিরভাগ ব্যাংকের শেয়ার দাম কমেছে। তবে গতকাল দরপতনে আধিপত্য দেখালেও আজ বেশিরভাগ বীমা ও বস্ত্র কোম্পানির শেয়ার দাম বেড়েছে। তবে বাকি খাতগুলো ব্যাংকের পথ ধরেছে। ফলে দিনের লেনদেন শেষে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সবকটি মূল্য সূচকের পতন হয়েছে।

এদিন তালিকাভুক্ত ৩১টি ব্যাংকের মধ্যে মাত্র চারটির শেয়ার দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ২৩টির। আর চারটির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

অপরদিকে বীমা খাতের ৫১টি কোম্পানির মধ্যে ৩৭টির শেয়ার দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১২টির। বাকি দুটির শেয়ার লেনদেন হয়নি। আর বস্ত্র খাতের ৫৮টি কোম্পানির মধ্যে ৪০টির শেয়ার দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১১টির এবং সাতটির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

বীমা ও বস্ত্র খাতের বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বাড়লেও সব খাত মিলে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। দিনের লেনদেন শেষে সব খাত মিলে ডিএসইতে ১৫৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৯৪টির। আর ৩৭টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এতে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ২৪ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ৩৭৯ পয়েন্টে নেমে গেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক ১৩ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ৩০৮ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসইর শরিয়াহ্ সূচক ১ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৩৮৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

সবকটি মূল্য সূচকের পতন হলেও এদিন বেড়েছে লেনদেনের পরিমাণ। ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৪৬২ কোটি ৮১ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ১ হাজার ৪২৮ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। সে হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ৩৩ কোটি ৮৭ লাখ টাকা।

টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে বারাকা সাইফ পাওয়ারটেকের শেয়ার। কোম্পানিটির ৬৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বারাকা পতেঙ্গা পাওয়ারের ৫০ কোটি ৯০ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৪৮ কোটি ৭১ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বেক্সিমকো।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- জিপিএইচ ইস্পাত, ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকো, এনআরবিসি ব্যাংক, ফু-ওয়াং সিরামিক, অ্যাক্টিভ ফাইন কেমিক্যাল, জিনেক্স ইনফোসিস এবং ওরিয়ন ফার্মা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্য সূচক সিএএসপিআই কমেছে ৮৩ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৪৬ কোটি ৪৯ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেয়া ৩০৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১১৪টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১৬৩টির এবং ৩২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এমএএস/এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]