৩ মাস অন্তর জিডিপি প্রবৃদ্ধির তথ্য দেবে বিবিএস

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৫০ পিএম, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

তিন মাস পর পর মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রবৃদ্ধির তথ্য দিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে অনুমোদন নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টিং (জিডিপি ও বৈদেশিক বাণিজ্য) উইংয়ের কোয়ার্টার্লি ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টিং (কিউএসএ) শীর্ষক এক কর্মশালায় তিনি এ কথা বলেন।

বছরান্তে মোট জিডিপি প্রবৃদ্ধির তথ্য দিয়ে থাকে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস)। তবে এবার বছরে চার বার বা তিন মাস পর পর জিডিপি প্রবৃদ্ধির তথ্য দেওয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে বিবিএস। পাশাপাশি জেলা এবং আঞ্চলিক জিডিপির হিসাবও দেবে বিবিএস।

মন্ত্রী বলেন, বিবিএস এই বিষয়ে প্রয়োজনীয় কাজ শুরু করেছে। তিন মাস পর প্রবৃদ্ধির তথ্য পেলে আর্থিক স্বাস্থ্যের তথ্যও জানতে পারবো।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেন, আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশগুলো তিন মাস পর পর জিডিপির তথ্য দিয়ে থাকে। কিন্তু দেরিতে হলেও আমরা কাজটা শুরু করতে যাচ্ছি। বার্ষিক প্রাক্কলন তো আছেই। তারপরও তিন মাস পর পর প্রবৃদ্ধির তথ্য পেলে জরুরি পদক্ষেপগুলো নিতে সহজ হবে। অর্থনীতিকে বোঝা, জানা, নীতি গ্রহণ ও পদক্ষেপ নিতে ত্রৈমাসিক প্রবৃদ্ধির তথ্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

অনুষ্ঠানে বলা হয়, বিবিএস জনশুমারি ও গৃহগণনা, কৃষি শুমারি ও অর্থনৈতিক শুমারি পরিচালনাসহ সকল নমুনা জরিপ করে থাকে। দেশের গুরুত্বপূর্ণ সামষ্টিক অর্থনৈতিক নির্দেশকসমূহ যেমন- জিডিপি, জিডিআই, জিএনআই, সঞ্চয়, বিনিয়োগ, ভোগ প্রভৃতির নির্ভরযোগ্য হিসাব প্রণয়ন ও প্রকাশ করে থাকে।

বিবিএস প্রতি বছর মোট দেশজ উৎপাদন, অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার, মূল্যস্ফিতিসহ কতিপয় গুরুত্বপূর্ণ সামষ্টিক অর্থনৈতিক পরিসংখ্যান প্রণয়ন ও প্রাক্কলন ও প্রকাশ করে থাকে।

এসএম/এমএইচআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]