বিজিএমইএ-ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় সমঝোতা স্মারক সই

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৫০ পিএম, ২৫ অক্টোবর ২০২১

রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক শিল্পের শ্রমিকদের বিষয়ে ডিজিটাল তথ্যভাণ্ডার তৈরির জন্য বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়েছে।

সোমবার (২৫ অক্টোবর) গুলশানস্থ বিজিএমইএ পিআর অফিসে বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান এবং ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ভিনসেন্ট চ্যাংয়ের উপস্থিতিতে এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বাংলাদেশের পোশাক শিল্পের গৌরবময় ইতিহাস প্রায় চার দশকের। কিন্তু এ শিল্পে নিয়োজিত সব শ্রমিকদের বিস্তারিত তথ্য এখনো একসঙ্গে সন্নিবেশিত করা হয়নি। যেহেতু পোশাকশিল্প একটি শ্রম-নিবিড় শিল্প এবং টেকসই প্রবৃদ্ধি নিশ্চিতকরণে শ্রমশক্তির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে, ফলে এ শিল্পের সব শ্রমশক্তির সঠিক, পরিপূর্ণ এবং বিশ্বাসযোগ্য তথ্যভাণ্ডার থাকা অপরিহার্য। এ প্রেক্ষাপটে বিজিএমইএ ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ‘ডিজিটাল রিপোজিটরি অব আরএমজি ওয়ার্কার্স’ শীর্ষক এ যৌথ প্রকল্পে সহযোগিতা করতে এগিয়ে এসেছে।

এ ডিজিটাল তথ্যভাণ্ডার ডিজিটাল বাংলাদেশ রূপকল্প-২০২১ এ অবদান রাখার পাশাপাশি শিল্পে হস্তক্ষেপ বিষয়ে ও শ্রমিকদের কল্যাণের জন্য নীতি প্রণয়নে ব্যবহার করা যেতে পারে বলেও অনুষ্ঠানে জানানো হয়।

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে টেকসই পোশাক শিল্প গড়ে তোলা এবং স্বাস্থ্যকর শিল্প ইকো-ব্যবস্থা (ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইকো সিস্টেম) নিশ্চিত করার বিষয়ে বিজিএমইএর আন্তরিকতারই বহিঃপ্রকাশ ঘটেছে। এ ডিজিটাল তথ্যভাণ্ডারটি গবেষণামূলক প্রমাণের মাধ্যমে শিল্প সম্পর্কে বিভিন্ন বিভ্রান্তিগুলো স্পষ্ট করবে।

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বলেন, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় এ ধরনের একটি শিল্প-একাডেমিয়া প্রকল্পের অংশীদার হতে পেরে আনন্দিত এবং এ সহযোগিতার মাধ্যমে গবেষণায় অখণ্ডতা আনতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। এ ডিজিটাল তথ্যভাণ্ডারের মাধ্যমে প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত পক্ষগুলো জ্ঞান ও প্রযুক্তি স্থানান্তর করতে পারবে।

সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বিজিএমইএর সহ-সভাপতি শহিদউল্লাহ আজিম ও সহ-সভাপতি মিরান আলী; নেদারল্যান্ড দূতাবাসের সিনিয়র পলিসি অ্যাডভাইজর ইকোনমিক অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড সিএসআর মাহজাবীন কাদের এবং লাউডস ফাউন্ডেশনের সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার, লেবার রাইটস নওরীন চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

ইএআর/এমকেআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]