সারের দামে কঠোর নজরদারির নির্দেশ কৃষিমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৫৩ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২১
ফাইল ছবি

কৃষক পর্যায়ে সারের পর্যাপ্ত সরবরাহ ও সরকার নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে যাতে সার বিক্রি না হয়- তা নিশ্চিত করতে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের কঠোর নজরদারি ও তদারকির নির্দেশ দিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী মো. আব্দুর রাজ্জাক।

মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) বিকেলে সচিবালয়ে নিজ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় মন্ত্রী এ নির্দেশ দেন। কৃষি মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মন্ত্রী বলেন, সারের সঙ্গে ফসলের উৎপাদন এবং সরকারের ভাবমূর্তিও জড়িত। সারের কোনো রকম সংকট হলে ফসল উৎপাদনে প্রভাব পড়বে, সরকারের ভাবমূর্তিও ক্ষুণ্ন হবে। সেজন্য দেশের কোথাও কোনোভাবেই যাতে সারের সরবরাহ এবং দাম নিয়ে ছলচাতুরি, কারসাজি ও কালোবাজারি না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

তিনি বলেন, দেশে সারের পর্যাপ্ত মজুত রয়েছে। বর্তমানে বিশ্ববাজারে সারের দাম তিনগুণ বেড়েছে। কিন্তু দেশে সরকার এ মুহূর্তে সারের দাম বাড়াবে না। বিশ্ববাজারে সারের দাম বাড়ার অজুহাতে দেশে কেউ যেন কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে সুযোগ নিতে না পারে, এ বিষয়ে মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সতর্ক থাকতে হবে।

গুণগতমান বজায় রেখে যথাসময়ে প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য প্রকল্প পরিচালকদের প্রতি আহ্বান জানান মন্ত্রী।

সভায় জানানো হয়, ২০২১-২২ অর্থবছরে কৃষি মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়নাধীন প্রকল্পের সংখ্যা ৭০টি। মোট বরাদ্দ দুই হাজার ৯১৮ কোটি টাকা। অক্টোবর ২০২১ পর্যন্ত বাস্তবায়ন অগ্রগতি হয়েছে ১৬ দশমিক ২৮ শতাংশ। এ সময়ে জাতীয় গড় অগ্রগতি হয়েছে ১২ দশমিক ৫০ শতাংশ।

সভা সঞ্চালনা করেন কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ও সচিবের রুটিন দায়িত্বরত মো. আবদুর রৌফ। এসময় মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও সংস্থাপ্রধানসহ প্রকল্প পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন।

আরএমএম/এমকেআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]