‘হয়রানির কারণে বিনিয়োগমুখী হবে না আগামী প্রজন্ম’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৫৬ পিএম, ০২ ডিসেম্বর ২০২১

শিল্প উদ্যোক্তাদের পদে পদে হয়রানি হতে হয় বিধায় আগামী প্রজন্ম দেশে বিনিয়োগমুখী হবে না বলে মনে করেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের কোম্পানি এনার্জিপ্যাকের পরিচালক হুমায়ুন রশীদ।

বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘কনজুমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) প্রণীত ভোক্তার জ্বালানি অধিকার সংরক্ষণে বিআইআরসির ভূমিকা মূল্যায়ন প্রতিবেদনের ওপর নাগরিকদের মতবিনিময় সভায় তিনি এই অভিমত ব্যক্ত করেন।

হুমায়ুন রশীদ বলেন, আমার প্রতিষ্ঠানে ১০ হাজার লোক কাজ করেন। ৮৩৩ জন প্রকৌশলী কাজ করেন। প্রাইভেট সেক্টরে এতগুলো চাকরির ব্যবস্থা করতে পেরেছি।

এলপিজিতে এনার্জিপ্যাকের বিনিয়োগ আছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এলপিজি করার জন্য আমাকে ২৮টি লাইসেন্স নিতে হয়েছে। লাইসেন্সগুলো ২৮টি অধিদপ্তর থেকে সংগ্রহ করতে হয়েছে। একেকটি অধিদপ্তরে যদি এক মাস করে লাগে তাহলে আমাদের ২৮ মাস লাগার কথা। আমি কার কাছে যাবো, যাওয়ার জায়গা নেই।

তিনি বলেন, আমরা যারা প্রাইভেট সেক্টরে বিনিয়োগ করেছি। আমরা কী অভিশাপ নিয়ে এই পৃথিবীতে এসেছি তা ঠিক জানি না। দীর্ঘদিন ধরেই দেশে রাজনৈতিক অস্থিরতা নেই। মেট্রো রেল, পদ্মা সেতুর মতো বড় প্রকল্পের কাজ শেষের পথে। এমন পরিস্থিতিতে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ বাড়ার কথা। তবে হয়েছে উল্টোটা।

জাতিসংঘের বাণিজ্য ও উন্নয়ন সংস্থা (আঙ্কটাড) সম্প্রতি ওয়ার্ল্ড ইনভেস্টমেন্ট রিপোর্ট-২০২১ বলছে, ২০২০ সালে বাংলাদেশে বিদেশি বিনিয়োগের পরিমাণ আগের বছরের তুলনায় সাড়ে ১০ শতাংশ কমেছে।

বিশ্বব্যাংকের ইজ অব ডুয়িং বিজনেস (ব্যবসা সহজ করা) সূচকে ১৯০টি দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ১৬৮তম। দুর্নীতি, আমলাতান্ত্রিক জটিলতা, জমির সহজলভ্যতার অভাবে বাংলাদেশে সুষ্ঠু বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ নেই বলে দেশি-বিদেীশ উদ্যোক্তাদের অভিযোগ।

হুমায়ুন রশীদ বলেন, আমাদের দেশে যারা উদ্যোক্তা তাদের হাজার হাজার চ্যালেঞ্জ। যে রাস্তা দিয়ে পণ্য আনা-নেওয়া করবো, সেই রাস্তা এখনো ঠিক হয়নি। এমন অনেক জ্বালা-যন্ত্রণা নিয়ে আমরা উদ্যোক্তা হয়েছি।’

প্রথম প্রজন্মের এই উদ্যোক্তা বলেন, আমি আমার সময়ে করে গেলাম কিন্তু আমার পরের জেনারেশন করবে না। হয়তো বুদ্ধিজীবি হওয়ার পেছনে বেশি সময় ব্যয় করবে।

সভায় আইনের সংশোধন ও কাঠামোগত পরিবর্তনের মাধ্যমে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনকে (বিআইআরসি) জনবান্ধব, জবাবদিহিমূলক প্রতিষ্ঠান করার তাগিদ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।এ জন্য নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির সক্ষমতা বাড়ানোর কথা বলেন তারা।

ক্যাবের সভাপতি গোলাম রহমান ছাড়াও সভায় বক্তব্য রাখনে আইনজীবী জ্যোর্তিময় বড়ুয়া, অটোগ্যাস স্টেশন মালিক সমিতির প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ সিরাজুল মওলা প্রমুখ।

এসএম/ইএ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]