তিতাসের গ্রাহকসেবার মান বাড়াতে না পারলে ব্যবস্থা: প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৪৪ পিএম, ১৭ জানুয়ারি ২০২২
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ

 

গ্রাহকসেবার মান বাড়াতে না পারলে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন ও ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন ও ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি পরিদর্শনকালে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘গ্রাহকদের কাছে জবাবদিহি বাড়াতে হবে। গ্রাহকদের কাছ থেকে প্রতিনিয়ত অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। অভিযোগগুলো দ্রুত নিষ্পত্তি করা প্রয়োজন। গ্রাহকসেবার মান বৃদ্ধি করতে না পারলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘কারিগরি কারণে ও এলএনজির বৈশ্বিক মূল্যবৃদ্ধির দরুণ গ্যাসের চাপ কিছুটা কম বিরাজমান। গ্রাহকদের আস্থা বাড়াতে তিতাসের কার্যক্রম প্রতিনিয়ত জানাতে হবে। অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার কার্যক্রম বাড়াতে হবে।’

তিতাসের বিদ্যমান প্রকল্পগুলো নিয়ে আলোচনাকালে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ভবিষ্যৎকে সামনে রেখে প্রকল্প নিলে আগামী প্রজন্ম ভালো সেবা পাবে। গ্যাসের প্রেসার সর্বত্র একই রাখা নিয়েও কাজ করার সময় এসেছে।’

অবৈধ সংযোগের বিষয়ে তিতাস জানায়, গত নভেম্বর মাসে ২৫ কিলোমিটার, ডিসেম্বর মাসে ২৪ দশমিক ১ কিলোমিটার ও ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত ১৬ কিলোমিটার অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে।

সরকারি গ্রাহকদের কাছে ৭৪৫ কোটি ২২ লাখ টাকা এবং বেসরকারি গ্রাহকদের কাছে ৫৬২০ কোটি ২৫ লাখ টাকা বকেয়া রয়েছে বলেও জানায় তিতাস।

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ গ্রাহকদের বকেয়া পরিশোধের অনুরোধ জানিয়ে বলেন, ‘প্রায় ছয় হাজার ৩৬৫ কোটি টাকা বকেয়া থাকার জন্য সেবাধর্মী অনেক প্রকল্প গ্রহণ করা সম্ভব হচ্ছে না।’

এ সময় সংশ্লিষ্টদের স্মার্টমিটার সংযোগ কার্যক্রম জোরদার করার নির্দেশ দেন জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী।

আরএমএম/বিএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]