শেয়ারপ্রতি ২০ টাকা অন্তর্বর্তী লভ্যাংশ দেবে ম্যারিকো

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৩১ এএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২২

চলতি হিসাব বছরের তৃতীয় প্রান্তিকে (২০২১ সালের অক্টোবর-ডিসেম্বর) ভালো ব্যবসা করেছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বহুজাতিক কোম্পানি ম্যারিকো বাংলাদেশ। এ জন্য কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ শেয়ারহোল্ডারদের ২০০ শতাংশ অন্তর্বর্তী নগদ লভ্যাংশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অর্থাৎ কোম্পানির শেয়ারহোল্ডাররা অন্তর্বর্তী লভ্যাংশ হিসেবে প্রতিটি শেয়ারের বিপরীতে ২০ টাকা করে পাবেন।

কোম্পানিটির পরিচালনা পর্ষদ সভা শেষে প্রকাশিত আর্থিক প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে এসব তথ্য পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মাধ্যমে এ প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে।

লভ্যাংশের পাওয়ার যোগ্য বিনিয়োগকারী নির্বাচন করতে রেকর্ড ডেট নির্ধারণ করা হয়েছে ১৫ ফেব্রুয়ারি। অর্থাৎ ১৫ ফেব্রুয়ারি যেসব বিনিয়োগকারীর কাছে কোম্পানিটির শেয়ার থাকবে তারাই লভ্যাংশ পাবেন।

মার্চ মাসে হিসাব বছর শেষ করা কোম্পানিটি এর আগে ২০২১ সালের এপ্রিল-জুন প্রান্তিক এবং জুলাই-সেপ্টেম্বর প্রান্তিকের আর্থিক অবস্থার ভিত্তিতে বিনিয়োগকারীদের ২০০ শতাংশ করে অন্তর্বর্তী লভ্যাংশ দিয়েছিল। এ হিসাবে চলমান হিসাব বছরের প্রথম তিন প্রান্তিকে কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের ৬০০ শতাংশ অন্তর্বর্তী নগদ লভ্যাংশ দিচ্ছে।

ডিএসই জানিয়েছে, ২০২১ সালের অক্টোবর-ডিসেম্বর প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ২৭ টাকা ৩৫ পয়সা, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ২২ টাকা ৬৮ পয়সা। অর্থাৎ কোম্পানিটির মুনাফা আগের বছরের তুলনায় ৪ টাকা ৬৭ পয়সা বেড়েছে।

আর চলমান হিসাব বছরের প্রথম নয় মাসে (২০২১ সালের এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত) কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ৯০ টাকা ৮ পয়সা, যা আগের হিসাব বছরের একই সময়ে ছিল ৭৯ টাকা ৩৫ পয়সা।

মুনাফায় পাশাপাশি কোম্পানিটির সম্পদ মূল্য আগের বছরের তুলনায় বেড়েছে। ২০২১ সালের ডিসেম্বর শেষে শেয়ারপ্রতি সম্পদ মূল্য দাঁড়িয়েছে ৮২ টাকা ৪ পয়সা, যা ২০২০ সালের ডিসেম্বর শেষে ছিল ৫৩ টাকা ২৫ পয়সা।

অন্যদিকে, অপারেটিং ক্যাশ ফ্লো’র তথ্যানুযায়ী, ২০২১ সালের এপ্রিল থেকে ডিসেম্বর সময়ে শেয়ারপ্রতি অপারিটিং ক্যাশ ফ্লো দাঁড়িয়েছে ১০১ টাকা ৭৫ পয়সা, যা আগের হিসাব বছরের একই সময়ে ছিল ১০১ টাকা ৭৯ পয়সা।

ডিএসই জানিয়েছে, অন্তর্বর্তী লভ্যাংশ ঘোষণা করায় আজ কোম্পানিটির শেয়ার দামে কোন সার্কিট ব্রেকার থাকবে না। অর্থাৎ কোম্পানিটির শেয়ার দাম যতখুশি বাড়তে বা কমতে পারবে।

এমএএস/এমএএইচ/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]