বঙ্গবন্ধুর হাত ধরেই দেশে নারীর ক্ষমতায়ন শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৪৭ পিএম, ০৯ মার্চ ২০২২
এফবিসিসিআই’র নারী দিবস উদযাপন

‌‘স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশে নারী পুনর্বাসন বোর্ড গঠন করেছিলেন। এরপর থেকেই নারীদের অধিকার নিয়ে বিভিন্ন সময়ে নানা কর্মসূচি পালন করা হয়। মূলত বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে বাংলাদেশে নারী অধিকার ও নারীর ক্ষমতায়নের প্রক্রিয়া শুরু হয়।’

মঙ্গলবার (৮ মার্চ) বিকেলে এফবিসিসিআই কার্যালয়ে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন এফবিসিসিআই’র সহ-সভাপতি এম এ মোমেন।

তিনি আরও বলেন, নারীরা এখন সব জায়গায় কাজ করছেন। প্রত্যেকটি জায়গাতেই তারা ভালো করছেন। এমনকি শিক্ষাগত ফলাফলেও নারীরা অনেক জায়গায় এগিয়ে থাকেন।

অনুষ্ঠানে এফবিসিসিআই সচিবালয়ে কর্মরত নারী কর্মকর্তারা ও নারী উদ্যোক্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এসময় বক্তারা বলেন, কর্মক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়ছে। দিন দিন নারী উদ্যোক্তা তৈরি হচ্ছে দেশে। অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিসহ দেশের সার্বিক উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে নারীদের অংশগ্রহণ আরও বাড়াতে হবে।

এর আগে অনুষ্ঠানের সভাপতি ও এফবিসিসিআই’র পরিচালক প্রীতি চক্রবর্তী বলেন, কর্মক্ষেত্রে পারস্পরিক সহযোগিতা ও সহমর্মিতার ভিত্তিতে দেশকে এগিয়ে নিতে হবে। কর্মক্ষেত্রে নারী-পুরুষ সমান অধিকার নিশ্চিত করা গেলে যে কোনো প্রতিষ্ঠান এগিয়ে যাবে।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ অনেক দেশের থেকে বেশি নারীবান্ধব। তবে যোগাযোগে নারীরা পিছিয়ে রয়েছেন। এই ক্ষেত্রটিতে নারীদের দক্ষতা উন্নয়নে কাজ করার আহ্বান জানান প্রীতি চক্রবর্তী।

এফবিসিসিআই’র পরিচালক কে এম আখতারুজ্জামান বলেন, নারীর অংশগ্রহণ ছাড়া কোনো দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। দেশকে এগিয়ে নিতে তাদের আরও বেশি উৎসাহ দিতে হবে।

আরেক পরিচালক হাসিনা নেওয়াজ বলেন, কর্মক্ষেত্রে পুরুষের থেকে নারীদের আন্তরকিতা বেশি দেখা যায়। এ চর্চা মূলত পরিবার থেকেই শেখেন নারীরা। নারীদের প্রতি যোগ্য সম্মান ও আস্থা রাখা গেলে প্রতিষ্ঠানের যে কোনো লক্ষ্য অর্জন করা সম্ভব।

এফবিসিসিআইতে কর্মরত নারী কর্মীদের প্রশংসা করে মহাসচিব মোহাম্মদ মাহফুজুল হক বলেন, আজকে নারীরা বিমান, সেনা বাহিনী, আদালত সবখানে অনেক ভালো করছেন।

ইএআর/ইএ

 

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।