বিনিয়োগকারীদের পছন্দের শীর্ষে ‘পচা’ বাংলাদেশ ফাইন্যান্স

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:২৮ পিএম, ০৫ আগস্ট ২০২২
ছবি: সংগৃহীত

গত সপ্তাহজুড়ে দেশের শেয়ারবাজারে বড় উত্থান হয়েছে। এ উত্থানের বাজারে সপ্তাহজুড়েই দাম বাড়ার ক্ষেত্রে দাপট দেখিয়েছে পচা কোম্পানি হিসেবে বিবেচিত জেড গ্রুপের প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স।

কোম্পানিটিটির শেয়ার এক শ্রেণির বিনিয়োগকারীদের পছন্দের শীর্ষে থাকায় সপ্তাহজুড়েই দাম বেড়েছে। ফলে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দাম বাড়ার শীর্ষ স্থানটি দখল করেছে এই কোম্পানিটি।

গেলো সপ্তাহজুড়ে বাংলাদেশ ফাইন্যান্সের শেয়ার দাম বেড়েছে ৩৫ দশমিক ১১ শতাংশ। টাকার অঙ্কে বেড়েছে ৩ টাকা ৩০ পয়সা। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে কোম্পানিটির শেয়ার দাম দাঁড়িয়েছে ১২ টাকা ৭০ পয়সা, যা আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৯ টাকা ৪০ পয়সা।

এমন দাম বাড়া কোম্পানিটি লোকসানে নিমজ্জিত থাকায় দীর্ঘদিন ধরে বিনিয়োগকারীদের কোনো লভ্যাংশ দিচ্ছে না। সর্বশেষ ২০১৩ সালে কোম্পানিটি বিনিয়োগকারীদের ৫ শতাংশ বোনাস শেয়ার লভ্যাংশ দেয়। এরপর আর কোনো লভ্যাংশ দেয়নি।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের মাধ্যমে সর্বশেষ ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর সমাপ্ত বছরের আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ওই প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, কোম্পানিটি শেয়ার প্রতি ১২ টাকা ২০ পয়সা লোকসান করেছে।

এমন লোকসান করা কোম্পানিটির শেয়ার দাম বাড়া নিয়ে সতর্ক করেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ। তারপরও দাম বাড়ার প্রবণতা থামেনি। ডিএসই থেকে বিনিয়োগকারীদের জানানো হয়েছে, বাংলাদেশ ফাইন্যান্সের শেয়ারের অস্বাভাবিক দাম বাড়ার প্রেক্ষিতে কোম্পানিটিকে নোটিশ পাঠানো হয়।

তার জবাবে কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সম্প্রতি শেয়ারের যে অস্বাভাবিক দাম বেড়েছে এবং লেনদেন বেড়েছে, তার জন্য কোনো অপ্রকাশিত মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই।

এদিকে, দাম বাড়লেও বিনিয়োগকারীদের একটি অংশ তাদের কাছে থাকা কোম্পানিটির শেয়ার বিক্রি করতে চাননি। ফলে সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে তিন কোটি চার লাখ ৬৫ হাজার টাকা। আর প্রতি কার্যদিবসে গড়ে লেনদেন হয়েছে ২৭ লাখ ৬ হাজার টাকা।

গত সপ্তাহে দাম বাড়ার শীর্ষ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে থাকা মালেক স্পিনিংয়ের শেয়ার দাম বেড়েছে ৩২ দশমিক ৮৪ শতাংশ। ২৭ দশমিক ৩৯ শতাংশ দাম বাড়ার মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে সোনারগাঁও টেক্সটাইল।

এছাড়া দাম বাড়ার শীর্ষ দশে স্থান করে নেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ওরিয়ন ইনফিউশনের ২৬ দশমিক ৩৬ শতাংশ, মোজাফ্ফর হোসেন স্পিনিংয়ের ২৬ দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ, সিমটেক্স ইন্ডাস্ট্রিজের ২৪ দশমিক ২৬ শতাংশ, ইউনিয়ন ক্যাপিটালের ২৩ দশমিক ৯৪ শতাংশ, গ্লোবাল হেবি কেমিক্যালসের ২৩ দশমিক ৩২ শতাংশ, অলেম্পিক ইন্ডাস্ট্রিজের ২৩ দশমিক ১৭ শতাংশ এবং এফএএস ফাইন্যান্সের ২৩ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ দাম বেড়েছে।

এমএএস/এএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]