মেয়াদোত্তীর্ণ খাবার-নকল প্রসাধনী বিক্রি, ৮ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:০৫ পিএম, ০৯ আগস্ট ২০২২
বিএসটিআইয়ের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান/ছবি: সংগৃহীত

ঢাকার ডেমরা, কদমতলী, যাত্রাবাড়ী ও কেরানীগঞ্জ এলাকায় অবৈধ ওষুধ, মেয়াদোত্তীর্ণ খাবার এবং নকল প্রসাধনীসামগ্রী উৎপাদন, মজুত ও বিক্রি করায় আট প্রতিষ্ঠানকে ২৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি দুজনকে সাজাও দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (৮ আগস্ট) র‌্যাব সদরদপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাজহারুল ইসলামের নেতৃত্বে র‌্যাব-১০-এর ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা ও সাজা দেন।

মঙ্গলবার (৯ আগস্ট) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

jagonews24

বিএসটিআইয়ের প্রতিনিধির উপস্থিতিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত অবৈধ ওষুধ, রাসায়নিক দ্রব্য, মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যদ্রব্য, মশার কয়েল এবং নকল প্রসাধনীসামগ্রী উৎপাদন, মজুত ও বিক্রি করার অপরাধে ডেমরার সজিব কেমিক্যাল কোম্পানিকে নগদ চার লাখ টাকা, নিউ দিলখুশ বেকারিকে দুই লাখ টাকা, হাইকো কনজিউমার প্রডাক্টসকে ৫০ হাজার টাকা, রাব্বি ওয়েল এন্টারপ্রাইজকে তিন লাখ টাকা, কদমতলীর জে কে ফুড প্রোডাক্টসকে তিন লাখ টাকা, নিউ সোলার পাওয়ার বুস্টার মশার কয়েলকে দুই লাখ টাকা, যাত্রাবাড়ীর হে বক্স অ্যান্ড কোম্পানিকে ছয় লাখ টাকা, কেরানীগঞ্জের গ্রিন প্যাক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডকে চার লাখ টাকা জরিমানা করেন।

এছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কেরানীগঞ্জের কনিক্স ট্রান্সমিশন জেলের দুজনকে জরিমানা করা হয়। অনাদায়ে একমাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন।

অভিযানকালে প্রায় পাঁচ লাখ টাকা মূল্যের অবৈধ ওষুধ, রাসায়নিক দ্রব্য, মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যদ্রব্য ও নকল প্রসাধনীসামগ্রী জব্দ ও ধ্বংস করা হয়।

এইচএ/এএএইচ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।