ভারতীয় উপমহাদেশে বঙ্গবন্ধুই প্রথম মাঠের মাটির সন্তান

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:২৭ পিএম, ১৫ আগস্ট ২০২২
পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, ভারতীয় উপমহাদেশে বঙ্গবন্ধুই প্রথম বাংলা মায়ের মাঠের মাটির সন্তান ছিলেন। যাকে সবাই ধরতে পারতো, ছুঁতে পারতো। বঙ্গবন্ধু ধনী-গরিব সবাইকে বুকে জড়িয়ে নিতেন। অথচ এই উপমহাদেশে অন্যান্য নেতাদের দেখা মেলা ভার ছিল।

সোমবার (১৫ আগস্ট) নগরীর এনইসি মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধুর শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এ কথা বলেন।

এম এ মান্নান বলেন, সবাই বঙ্গবন্ধুর দর্শন পেতো। যে কারণে বঙ্গবন্ধু বাংলার খেতমজুর, কুলি, কামার, চাষি, চালক সবার কাছের মানুষ ছিলেন। তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশ এখন মধ্যম-আয়ের দেশ। ২০৪১ সালে বাংলাদেশ উন্নত দেশে পরিণত হবে।

তিনি বলেন, আর কান্না নয়, আমাদের শোককে শক্তিতে পরিণত করে দেশসেবায় নিজেদের আত্মনিয়োগ করতে হবে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিল বাংলাদেশকে পেছনে ফেলতে। আমাদের সবাইকে সঠিক দায়িত্ব পালন করে দেশকে সমৃদ্ধ করতে হবে। ক্ষুধা ও দারিদ্র্য দূর করার লক্ষ্যে সঠিক দায়িত্ব পালনেই বঙ্গবন্ধুর দেখা মিলবে, আমরা তাকে খুঁজে পাবো।



বঙ্গবন্ধু হত্যাকে পৈশাচিক ও জঘন্য হত্যাকাণ্ড উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড মানব ইতিহাসের বর্বরোচিত ঘটনা। আমরা অনেক হত্যার কথা জানি, আমরা আব্রাহাম লিংকন, জন এফ কেনেডিসহ বিশ্বের অনেক রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডের কথা জানি। কিন্তু এমন নিষ্ঠুর, নির্মম, পৈশাচিক ও জঘন্য হত্যাকাণ্ড কোথাও হয়নি। এটা আমাদের জন্য চরম লজ্জার।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ডের কারণে সারা পৃথিবীতে আমাদের লজ্জায় পড়তে হয়। এমন চরম লজ্জা ও অপমাণের ঘটনা আছে কি না আমার জানা নেই। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্যদিয়ে আমাদের পেছনে টেনে ধরা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে দেশ অনেক আগেই সোনার বাংলায় পরিণত হতো।

পরিকল্পনা বিভাগর সচিব মো. মামুন আল রশীদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব ড. শাহনাজ আরেফিন, বাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) মহাপরিচালক (ডিজি) বিনায়ক সেন প্রমুখ।

এমওএস/ইএ/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।