‘চাকরির বাজারে উপযুক্ত দক্ষতা নিয়ে প্রস্তুত হতে হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:০৩ পিএম, ১৭ আগস্ট ২০২২

পোশাক শিল্পের ভবিষ্যৎ চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা, বিশেষ করে দ্রুত পরিবর্তনশীল ফ্যাশন বিশ্ব এবং প্রযুক্তির ঘন ঘন পরিবর্তনের প্রেক্ষাপটে শিল্পকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য শিল্প-একাডেমিয়া সহযোগিতা অপরিহার্য। শিল্পের জন্য যোগ্য এবং উপযুক্ত কর্মীগোষ্ঠী গড়ে তোলার পাশাপাশি শিল্পের প্রয়োজনে গবেষণা চালানো ও জ্ঞানার্জনের জন্য শিল্প এবং একাডেমিয়ার মধ্যে অংশীদারত্ব স্থাপন প্রয়োজন।

বৃহস্পতিবার (১৭ আগষ্ট) নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির (এনএসইউ) মার্কেটিং অ্যান্ড ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস বিভাগ আয়োজিত এক আলোচনায় এসব মন্তব্য করেন তৈরি পোশাক মালিক ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শহিদউল্লাহ আজিম।

‘অর্থপূর্ণ শিল্প-একাডেমিয়া অংশীদারত্ব: বাংলাদেশের দ্রুত প্রবৃদ্ধি এবং ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার উপর পোশাক শিল্পখাতের প্রভাব’ নিয়ে এ আলোচনার আয়োজন করা হয়।

শহিদউল্লাহ আজিম বলেন, ফ্যাশন শিল্পে ব্যবসায়িক গতি-প্রকৃতি দ্রুত গতিতে পরিবর্তিত হচ্ছে। বৈচিত্র্যময় ফ্যাশনেবল পণ্যের জন্য গ্রাহকদের পরিবর্তিত চাহিদা মেটাতে প্রযুক্তির ব্যবহার ক্রমবর্ধমানভাবে বাড়ছে।

তিনি আরও বলেন, শিল্প-একাডেমিয়া সংযোগ গুরুত্বপূর্ন। কারণ আমাদের প্রবৃদ্ধি নির্ভর করছে বৈচিত্র্যময় পণ্যগুলোতে যাওয়ার জন্য আমাদের সক্ষমতা কতটুকু আছে, তার উপর আর সক্ষমতার জন্য উপযুক্ত দক্ষতার প্রয়োজন। সমসাময়িক উৎপাদন কৌশল, পণ্যের আভিজাত্য এবং ফ্যাশন প্রবণতা- এগুলোর সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলার জন্য চাকরির বাজারে উপযুক্ত দক্ষতা সহ প্রস্তুত হতে হবে।

এছাড়াও তিনি পোশাক শিল্প, ব্যবসার বৈশ্বিক চিত্রপট, প্রবণতা এবং পোশাক শিল্পে ক্যারিয়ার সম্ভাবনা বিষয়ে এনএসইউ শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নেরও উত্তর দেন।

ইএআর/এমএইচআর/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।