সূচকে মিশ্র প্রবণতা, কমেছে লেনদেন

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৩৯ পিএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) দেশের শেয়ারবাজারে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারে দাম বাড়লেও সূচকে মিশ্র প্রবণতা দেখা গেছে। প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক বাড়লেও কমেছে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত সূচক। সেইসঙ্গে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ।

এর আগে গত মঙ্গলবার (২০ সেপ্টেম্বর) ডিএসইতে এক বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ লেনদেন হয়। বাজারটিতে লেনদেন বেড়ে দাঁড়ায় ২ হাজার ৮৩২ কোটি ৩০ লাখ টাকায়। রেকর্ড এ লেনদেনের পরেই বুধবার (২১ সেপ্টেম্বর) সূচকের বড় পতন হয়। সেইসঙ্গে কমে লেনদেনও।

বৃহস্পতিবার লেনদেন আরও কমে এসেছে। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৬৬৬ কোটি ১৩ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ১ হাজার ৮০৮ কোটি ১৯ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন কমেছে ১৪২ কোটি ৬ লাখ টাকা।

এদিন ডিএসইতে লেনদেন শুরু হয় বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বাড়ার মাধ্যমে। লেনদেনের শেষপর্যন্ত অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বাড়ার ধারা অব্যাহত থাকে। তবে, লেনদেনের এক পর্যায়ে বড় মূলধনের বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম কমে যায়। এতে সূচক ঋণাত্মক হয়ে পড়ে।

লেনদেনের শেষদিকে বড় মূলধনের কিছু প্রতিষ্ঠানের শেয়ার দাম বাড়লে পতনের হাত থেকে রক্ষা পায় প্রধান সূচক। তবে, বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত সূচক পতনের হাত থেকে রক্ষা পায়নি।

দিনভর ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেওয়া ১৩১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৭৮টির। আর ১৬৬টির দাম অপরবর্তিত রয়েছে। এতে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১২ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ৫৬৪ পয়েন্টে উঠেছে।

অপর দুই সূচকের মধ্যে বাছাই করা ভালো ৩০টি কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক আগের দিনের তুলনায় ৯ পয়েন্ট কমে ২ হাজার ৩৬৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ আগের দিনের তুলনায় দশমিক ৩৭ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৪৩৬ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ওরিয়ন ফার্মার শেয়ার। কোম্পানিটির ১৯৫ কোটি ৪০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছ। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেক্সিমকোর ১৫২ কোটি ২৭ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ৯২ কোটি ২৯ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে— জেএমআই হসপিটাল অ্যান্ড রিকুইজিট ম্যানুফ্যাকচারিং, শাহজিবাজার পাওয়ার, একমি ল্যাবরেটরিজ, ইউনিক হোটেল, লাফার্জহোলসিম বাংলাদেশ, বসুন্ধরা পেপার এবং ইস্টার্ন হাউজিং।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ২৫ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৯৯ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেওয়া ২৬১টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৯১টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ৬৩টির এবং ১০৭টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এমএএস/এমএএইচ/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।