ই-কমার্স লেনদেনের পিএসও লাইসেন্স পেলো ‘সার্ভিস হাব’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৫৭ পিএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২

ই-কমার্স লেনদেনের জন্য সার্ভিস হাব লিমিটেডকে পেমেন্ট সিস্টেম অপারেটর (পিএসও) লাইসেন্স দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। দেশে ‘পে স্টেশন’ ব্র্যান্ড নামে প্রতিষ্ঠানটি ব্যবসায়ীদের সেবা দেবে।

বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ ব্যাংকের পেমেন্ট সিস্টেমস ডিপার্টমেন্ট এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন দিয়েছে। প্রজ্ঞাপনটি দেশের সব তফসিলি ব্যাংক, মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস প্রোভাইডার, পেমেন্ট সিস্টেম অপারেটর এবং পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডারের কাছে পাঠানো হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্দেশনায় বলা হয়, বাংলাদেশ ব্যাংক অর্ডার ১৯৭২ এর ৭ (এ) (ই) ধারার আওতায় জারি করা বাংলাদেশ পেমেন্ট অ্যান্ড সেটেলমেন্ট সিস্টেমস রেগুলেশনস ২০১৪ অনুসারে বাংলাদেশ ব্যাংক ‘সার্ভিস হাব লিমিটেড’-কে দেশের অভ্যন্তরে ‘পে স্টেশন’ ব্র্যান্ড নামে পেমেন্ট সার্ভিস অপারেটর হিসেবে লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের লাইসেন্স ছাড়া পেমেন্ট সার্ভিস প্রোভাইডার (পিএসপি) ও পেমেন্ট সিস্টেম অপারেটরদের (পিএসও) কোনো ধরনের সেবা না দেওয়ার জন্য ব্যাংকের প্রতি নির্দেশ দেওয়া আছে। বাংলাদেশ ব্যাংক বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানকে পিএসপি ও পিএসও লাইসেন্স দিয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে আইপে সিস্টেম, ডি মানি ও রিকারশন ফিনটেক ইত্যাদি। পিএসও লাইসেন্স আছে আইটি কনসালট্যান্ট, এসএসএল কমার্স ও সূর্যমুখী লিমিটেডের ও অপটিমাম সলিউশনের।

তাছাড়া মোবাইলে আর্থিক সেবা (এমএফএম) দেওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোও কেনাকাটা, বিল পরিশোধ ও লেনদেন সুবিধা দিয়ে আসছে। দেশে ১৬টি ব্যাংক এ সেবা দিচ্ছে। এসব ব্যাংকের মধ্যে রয়েছে-ব্র্যাক ব্যাংকের বিকাশ, ডাচ্-বাংলার রকেট, ইসলামী ব্যাংকের এম ক্যাশ, ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের উপায়, সাউথইস্ট ব্যাংকের টেলিক্যাশ, ওয়ান ব্যাংকের ওকে, মার্কেন্টাইল ব্যাংকের মাই ক্যাশ, প্রাইম ব্যাংকের প্রাইম ক্যাশ, স্ট্যান্ডার্ড ব্যাংকের স্পট ক্যাশ, ট্রাস্ট ব্যাংকের মোবাইল মানি, মেঘনা ব্যাংকের ট্যাপ এন পে। এ ছাড়া রূপালী, ফার্স্ট সিকিউরিটি, বাংলাদেশ কমার্স, এনসিসি ও যমুনা ব্যাংক দিচ্ছে শিওর ক্যাশ।

ইএআর/এমআইএইচএস/জেআইএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।