প্রতিদিন ১০ শতাংশ করে বাড়ছে চার্টার্ড লাইফের শেয়ারের দাম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৫২ এএম, ২৬ নভেম্বর ২০২২

পতনের মধ্য দিয়ে গত সপ্তাহ পার করেছে দেশের শেয়ারবাজার। এই পতনের বাজারে সপ্তাহজুড়ে দাম বাড়ার ক্ষেত্রে দাপট দেখিয়েছে নতুন তালিকাভুক্ত চার্টার্ড লাইফ। সপ্তাহে লেনদেন হওয়া পাঁচ কার্যদিবসের প্রতিদিনই চার্টার্ড লাইফের শেয়ার দাম বাড়ার সর্বোচ্চ সীমা স্পর্শ করে। ফলে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) দাম বাড়ার শীর্ষস্থান দখল করেছে এই প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার।

শুধু গত সপ্তাহ নয়, শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরুর পর থেকে প্রতিদিনই দাম বাড়ার সর্বোচ্চ সীমা স্পর্শ করেছে এই জীবন বিমা কোম্পানিটি। শেয়ারবাজারের নিয়ম অনুযায়ী, একদিনে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ বাড়তে পারে। গত ৩০ অক্টোবর থেকে শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরুর পর এখনো পর্যন্ত প্রতিটি কার্যদিবসেই দিনের সর্বোচ্চ দামে কোম্পানিটির শেয়ারের বিপুল ক্রয় আদেশ এসেছে। অপরদিকে প্রতিদিনই শূন্য পড়ে থেকেছে বিক্রয় আদেশের ঘর।

এভাবে দাম বাড়ায় এক মাসের কম সময়ের মধ্যে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়েছে ৫৫৫ শতাংশ। এতে ১০ টাকা দামের প্রতিটি শেয়ারের দাম ৬৫ টাকা ৫০ পয়সায় উঠে গেছে। প্রাথমিক গণপ্রস্তাবে (আইপিও) সাধারণ বিনিয়োগকারীরা কোম্পানিটির মাত্র ৩১টি করে শেয়ার পেয়েছেন।

গত সপ্তাহে লেনদেন হওয়া পাঁচ কার্যদিবসের প্রতিদিনই চার্টার্ড লাইফের শেয়ার দাম বাড়ার সর্বোচ্চ সীমা স্পর্শ করায় এক সপ্তাহেই কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়েছে ৬০ দশমিক ১৫ শতাংশ। টাকার অঙ্কে বেড়েছে ২৪ টাকা ৬০ পয়সা। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম দাঁড়িয়েছে ৬৫ টাকা ৫০ পয়সা। আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে যা ছিল ৪০ টাকা ৯০ পয়সা।

ট্রেজারি বন্ড, শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ ও ইস্যু ব্যবস্থাপনা খাতে খরচ করতে আইপিওতে শেয়ার ছেড়ে ১৫ কোটি টাকা উত্তোলন করেছে চার্টার্ড লাইফ। এ জন্য আইপিওতে কোম্পানিটি ১০ টাকা করে এক কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ইস্যু করে। আইপিওতে আনতে কোম্পানিটিকে বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) আইন পরিপালনের স্বার্থে পাবলিক ইস্যু রুলস ২০১৫-এর রুল ৩(২) (পি) থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

এদিকে, শেয়ারের দাম বাড়ার পরও বিনিয়োগকারীদের বড় অংশ কোম্পানিটির শেয়ার বিক্রি করতে চাননি। ফলে সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ২৩ কোটি ৯৮ লাখ ২ হাজার টাকা। আর প্রতি কার্যদিবসে গড়ে লেনদেন হয়েছে ৪ কোটি ৭৯ লাখ ৬০ হাজার টাকা।

গত সপ্তাহে দাম বাড়ার শীর্ষ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে ছিল প্রগতী লাইফ ইন্স্যুরেন্স। গত সপ্তাহজুড়ে এই কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়েছে ২০ দশমিক ৫৩ শতাংশ। এর পরের স্থানটিতে রয়েছে অ্যাডভেন্ট ফার্মা। সপ্তাহজুড়ে এ কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়েছে ১৭ দশমিক ৭০ শতাংশ।

এছাড়া দাম বাড়ার শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় থাকা বাংলাদেশ ওয়েল্ডিংয়ের ১০ দশমিক ৪২ শতাংশ দাম বেড়েছে। প্রোগ্রেসিভ লাইফ ইন্স্যুরেন্সের দাম বেড়েছে ১০ দশমিক ১৯ শতাংশ, বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্সের ৯ দশমিক ৭৩ শতাংশ, অ্যাপেক্স ফুডসের ৮ দশমিক ৬৭ শতাংশ, জুট স্পিনার্সের ৮ দশমিক শূন্য ৩ শতাংশ, বিডি থাই ফুডের ৪ দশমিক ৭১ শতাংশ এবং এএফসি অ্যাগ্রোর ৩ দশমিক ৮৩ শতাংশ দাম বেড়েছে।

এমএএস/কেএসআর/এএসএম

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।