প্রথম দিনেই সহস্রাধিক আবেদন ৩৮তম বিসিএসে


প্রকাশিত: ০২:০১ পিএম, ১০ জুলাই ২০১৭

৩৮তম বিসিএস পরীক্ষার আবেদন কার্যক্রম শুরু হয়েছে আজ (সোমবার)। প্রথম দিন বিকেলেই সহস্রাধিক আবেদন জমা পড়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ কর্ম কমিশনের (পিএসসি) পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আ ই ম নেছার উদ্দিন।

তিনি বলেন, কোনো প্রকার ভোগান্তি ছাড়াই ৩৮তম বিসিএস আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। সোমবার বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত মোট ১ হাজার ১০৭ জনের আবেদন জমা পড়েছে। পরীক্ষার ফি বাবদ টাকা জমা দিয়েছেন ৪১৭ জন। আজ রাত ১২টা পর্যন্ত দেড় হাজার আবেদন ছাড়িয়ে যেতে পারে। সে অনুপাতে টাকা জমা দেয়া আবেদনকারীর সংখ্যাও বাড়বে। আগামী ১০ আগস্ট পর্যন্ত আবেদন প্রক্রিয়া চলবে।

তিনি আরও বলেন, আবেদনকারীদের সুবিধার্থে হেল্পলাইন চালু করা হয়েছে। আবেদন করার সময় কেউ কোনো সমস্যা মনে করলে টেলিটকের হেল্পলাইনে ফোন করে পরামর্শ নিতে পারবেন। পিএসসির ওয়েবসাইটে হেল্পলাইন নম্বর পাওয়া যাবে।

কী কী ধরনের অভিযোগ আসছে সে বিষয়ে টেলিটক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করে জানা গেছে, টেকনিক্যাল, হোমিওপ্যাথিসহ বিভিন্ন বিষয়ে পাস করা শিক্ষার্থীদের নির্ধারিত বিষয়ভিত্তিক কোড নম্বর না থাকায় তারা আবেদন সম্পন্ন করতে পরামর্শ চাচ্ছেন।

এছাড়া সম্প্রতি চালু হওয়া নতুন বিষয়ের কোড নম্বর না থাকায় কীভাবে আবেদন করতে হবে তা জানতে হেল্পলাইনে ফোন করে পরামর্শ চাচ্ছেন আবেদনকারীরা।

এ বিষয়ে পিএসসির চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ সাদিক বলেন, সম্প্রতি শিক্ষা মঞ্জুরি কমিশন নতুন কয়েকটি বিষয় চালু করেছে। সেসব বিষয়ের কোড নম্বর পিএসসির কাছে নেই।

এ কারণে এবারের বিসিএস পরীক্ষার আবেদনে সেসব বিষয়ের কোড নম্বর যুক্ত করা সম্ভব হয়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, আবেদনের শর্ত অনুযায়ী যোগ্য বলে বিবেচিত সবাই আবেদন করতে পারবেন। কেউ যেন আবেদন থেকে বঞ্চিত না হয় সেজন্য একটি (৯৯৯) কমন কোড দেয়া হয়েছে। যাতে তারাও এই কোড ব্যবহার করে আবেদনটি সম্পন্ন করতে পারে। এসব বিষয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বিস্তারিত দেয়া হয়েছে। আবেদন করার পূর্বে ভালো করে বিজ্ঞপ্তিটি পড়লেই বোঝা যাবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ৩৮তম বিসিএস পরীক্ষায় আসছে নানা পরিবর্তন। অনলাইন আবেদনে জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর সংযোজন, যুক্ত হচ্ছে ৫০ নম্বরের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস। এছাড়া থাকবে বাংলা ও ইংরেজিতে উত্তর দেয়ার সুযোগ।

এমএইচএম/এমএমজেড/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :