‘কারিগরিতে পড়ছে ১৪ শতাংশ শিক্ষার্থী’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১২ পিএম, ২০ মে ২০১৮

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, বর্তমানে কারিগরি শিক্ষা গ্রহণ করছে শতকরা ১৪ ভাগের বেশি শিক্ষার্থী। কারিগরির প্রতি শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের আকৃষ্ট করা, মান উন্নত করা, শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ এবং বিনিয়োগকারী ও শিল্প-মালিকদের সম্পৃক্ত করাসহ বিভিন্ন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

রোববার রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (আইডিইবি) মিলনায়তনে ‘বিল্ড স্কিল বাংলাদেশ ফর ইমার্জিং বাংলাদেশ এজ ডেভেলপড নেশন’ শীর্ষক গবেষণাগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, উন্নত ও আধুনিক বাংলাদেশ গড়তে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে হবে। এ জন্য কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার প্রসারের বিকল্প নেই। বাস্তব কর্মজীবনে প্রয়োগ করা যায় এমন আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর দক্ষতা অর্জন করতে হবে। বিনিয়োগকারী বা চাকরিদাতাদের চাহিদা অনুযায়ী জনবল তৈরি করতে হবে।

কারিগরি শিক্ষার অগ্রাধিকারের বিষয়টি পুনর্ব্যক্ত করে শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, দেশে ৪৯টি সরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট রয়েছে। আরও ২৩টি ইনস্টিটিউট স্থাপন করা হবে। বেসরকারি ইনস্টিটিউট রয়েছে প্রায় ৪৫০টি। এ ছাড়া বেসরকারি পর্যায়ে প্রায় ৭ হাজার কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান রয়েছে। সরকার এসব প্রতিষ্ঠানকে পৃষ্ঠপোষকতা করছে এবং সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, কারিগরি বিষয়ের শিক্ষকদের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য ৪২০ জন শিক্ষককে সিঙ্গাপুরের নানিয়ান পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। আরও এক হাজার ১০৫ জন শিক্ষক এ পতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। এ ছাড়া চীনের গুয়াংজু পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে ৫৮১ জন শিক্ষক প্রশিক্ষণ নিচ্ছেন। সেখানে আরও এক হাজার শিক্ষককে প্রশিক্ষণে পাঠানো হবে।

আইডিইবির সভাপতি এ কে এম এ হামিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলী, অতিরিক্ত সচিব এ কে এম জাকির হোসেন ভূঞা, ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মো. সফিউল ইসলাম (মহিউদ্দিন) এবং আইডিইবির সাধারণ সম্পাদক মো. শামসুর রহমান।

গবেষণাপত্রের ওপর উপস্থাপনা পেশ করেন যশোর টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. সৈয়দ আব্দুল আজিজ। গবেষণাপত্রে বাংলাদেশের শ্রমশক্তির উৎপাদন দক্ষতার তুলনামূলক বিশ্লেষণ, দক্ষ শ্রমশক্তি উন্নয়নের কৌশলগত কর্মপরিকল্পনা ইত্যাদি বিষয়ে বিভিন্ন সুপারিশ তুলে ধরা হয়।

এমএইচএম/জেডএ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :