ক্লাস বর্জন করে রাস্তায় সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজের শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৩৩ পিএম, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

পুরান ঢাকার সেন্ট্রাল উইমেন্স কলেজের অধ্যক্ষ ইফতেকার আলীর বিরুদ্ধে অবৈধ নিয়োগ ও নানা দুর্নীতির অভিযোগ বানোয়াট ভিত্তিহীন দাবি করে কলেজ প্রাঙ্গণে অবরোধ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

বুধবার সকাল থেকে কলেজ প্রাঙ্গণে পোস্টার-ব্যানার হাতে নিয়ে ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দেন শিক্ষার্থীরা। পরে কয়েক শতাধিক শিক্ষার্থী জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এসে জড়ো হন। শিক্ষার্থীদের দাবি, ‘যতদিন পর্যন্ত অধ্যক্ষ স্যারের সম্মান ফিরিয়ে দিতে না পারছি ততদিন সব ধরনের কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।’

শিক্ষার্থীরা বলেন, ‘আমাদের অধ্যক্ষ কোনো ধরনের অনিয়ম-দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত নেই। তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে, তাকে কোনো চক্রের ইশারায় অধ্যক্ষের পদ থেকে সরাতে নানা ধরনের ফন্দি চালানো হচ্ছে।’ যে অন্যায় অভিযোগ আনা হয়েছে তার সুষ্ঠু তদন্তও চান শিক্ষার্থীরা।

এর আগে অধ্যক্ষ ইফতেকার আলীর বিরুদ্ধে অবৈধ নিয়োগ ও নানা দুর্নীতির অভিযোগ উঠলে তা তদন্ত করে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর। তদন্তে তার নিয়োগ অবৈধ ও বির্তকিত বলে প্রমাণিত হয়েছে।

এছাড়া তার বিরুদ্ধে ওঠা ‘টাকার বিনিময়ে নিষিদ্ধ গাইডবই সিলেবাসে অন্তর্ভুক্তকরণের’ অভিযোগটির সত্যতাও পেয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতরের তদন্ত কর্মকর্তারা। দুই মাস আগে জমা দেয়া তদন্ত প্রতিবেদনটির সুপারিশসমূহ বাস্তবায়ন না করে ধামাচাপার চেষ্টা করছেন মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরে থাকা ইফতেকার সিন্ডিকেটের সদস্যরা।

তবে শিক্ষা অধিদফতর তদন্তে অভিযোগের প্রমাণ পেলেও শিক্ষার্থীরা এর কঠোর বিরোধিতা করছেন। তারা দাবি করেন, অন্য কাউকে অধ্যক্ষ পদে বসাতে তার বিরুদ্ধে এ ধরনের ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। তারা অধ্যক্ষ ইফতেকার আলীকে সসম্মানে তার আসনে বসাতে চান এবং তার বিরুদ্ধে অভিযোগের উল্লেখযোগ্য প্রমাণ চান।

এমএইচএম/জেএইচ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :