রাজধানীর দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষক অনুপস্থিতির হার উদ্বেগজনক

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৪৯ এএম, ০৮ মার্চ ২০১৯

রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আকস্মিক পরিদর্শনে গিয়ে শিক্ষক অনুপস্থিতির ভয়াবহ চিত্র পেয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। রাজধানীর গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুলের মর্নিং শিফটের ৩৩ শিক্ষকের মধ্যে ১৪ জনকেই অনুপস্থিত পেয়েছেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের কর্মকর্তারা। আর মোহাম্মদপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৭ জন শিক্ষক অনুপস্থিত ছিলেন।

বৃহস্পতিবার (৭ মার্চ) রাজধানীর বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আকস্মিক পরিদর্শনে যায় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন উইং। পরিদর্শনে এ দুটি বিদ্যালয়ে শিক্ষক অনুপস্থিতির ভয়াবহ চিত্র পাওয়া যায়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন উইংয়ের পরিচালক প্রফেসর সেলিম মিয়া জাগো নিউজকে বলেন, শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশে আকস্মিক পরিদর্শন করা হয়েছে। সেখানে দুটি স্কুলে শিক্ষক অনুপস্থিত ভয়াবহ চিত্র পেয়েছি।

তিনি জানান, পরিদর্শন প্রতিবেদন মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। এসব শিক্ষককে কারণ দর্শানো হবে। পরবর্তীতে তাদের বিরুদ্ধে আরও কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা গেছে, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে রাজধানীর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আকস্মিক পরিদর্শনের জন্য একটি কমিটি গঠন করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর। এ কমিটি প্রধান হিসেবে রয়েছেন অধিদফতরের মনিটরিং ও ইভালুয়েশন শাখার পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. সেলিম মিয়া। এছাড়াও রয়েছেন উপ-পরিচালক সেলিনা জামান, মনিটরিং অফিসার মো. রোকনুজ্জামান, সহকারী পরিচালক লাইলুন নাহার এবং মনিটরিং অফিসার নজরুল ইসলাম।

আকস্মিক পরিদর্শনে গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাইস্কুল, মোহাম্মপুর সরকারি স্কুল ছাড়াও সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজ, খিলগাঁও সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, ঢাকা জেলা শিক্ষা অফিস, থানা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস, মোহাম্মদপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, রাজধানী উচ্চ বিদ্যালয় এবং ইংরেজি মাধ্যম স্কুল ম্যাপল লিফ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এবং স্কলাসটিকা ইন্টারন্যাশনাল স্কুল পরিদর্শন করেন তারা।

তবে অন্যান্য স্কুলে শিক্ষক অনুপস্থিতি পেলেও এ দুটি প্রতিষ্ঠানে অনুপস্থিতরি হার ছিল উদ্বেগজনক। অনুপস্থিত শিক্ষকদের প্রাথমিকভাবে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হচ্ছে। পরবর্তীতে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার দিকে যাবে মন্ত্রণালয়।

এ বিষয়ে মোহাম্মদপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুন্নাহারের দাবি, ব্যবহারিক পরীক্ষা থাকায় অনুপস্থিত ১৭ জন শিক্ষককে ছুটি দিয়ে দেয়া হয়েছে। তাই তারা প্রতিষ্ঠানে অনুপস্থিত।

যদিও অধিদফতরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ব্যবহারিক পরীক্ষায় শিক্ষকদের এভাবে ছুটি দেয়ার কোনো এখতিয়ার প্রধান শিক্ষকের নেই। যদি এমনটাই হয় প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এমএইচএম/বিএ