‘ডাকলেই ছুটে আসব, দোয়া করবেন’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:২৭ পিএম, ২৫ আগস্ট ২০১৯

‘আপনার/আপনাদের যেকোনো সমস্যায় ডাকলেই ছুটে আসব। দোয়া করবেন।’ গত কয়েকদিন ধরে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের আজিমপুর শাখায় মর্নিং শিফটের ছুটি ও ডে শিফটের ক্লাস ছুটি ও শুরুর আগে স্কুল গেট ও আশপাশে অপেক্ষমাণ অভিভাবকদের সামনে উপস্থিত হয়ে বিনীত ভঙ্গিতে এভাবে অনেককেই দোয়া চাইতে দেখা যায়।

আসন্ন গভর্নিং বডির মাধ্যমিক ও প্রাথমিক শাখায় (২০১৯-২০২১) নির্বাচনে অভিভাবক প্রতিনিধি পদে নির্বাচনে অংশ নিতে ইচ্ছুক প্রার্থীরা নিজেরা ও তাদের পক্ষে তাদের কর্মী-সমর্থক শিক্ষার্থীর অভিভাবকদের কাছে দোয়া চাইছেন। এখন পর্যন্ত নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা না করা হলেও পবিত্র ঈদুল আজহার ঈদ শুভেচ্ছাসহ প্রায়ই এসএমএস পাঠিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় ও দোয়া চাইছেন প্রার্থীরা। শুধু তাই নয়, স্কুলের ফটকসহ আশপাশ বিভিন্ন প্রার্থীর ফোর-কালার পোস্টার, ব্যানার ও স্টিকারে ছেয়ে গেছে। প্রার্থীদের কেউ কেউ আবার বিগত নির্বাচনে বিজয়ী প্রার্থী। এসব প্রার্থীরা তাদের নির্বাচন-পরবর্তী কাজের ফিরিস্তি তুলে ধরে লিফলেট বিতরণ করছেন।

আজ রোববার সরেজমিন পরিদর্শনকালে দেখা গেছে, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের আজিমপুর শাখায় নির্বাচনে প্রার্থীদের ব্যানার, পোস্টার ও লিফলেটে দুইপাশের দেয়াল ছেয়ে গেছে। প্রার্থীদের কেউ আইনজীবী, কেউ ইঞ্জিনিয়ার, ডাক্তার আবার কেউ বা যুগ্মসচিব।

Viqarunnisa

সম্ভাব্য প্রার্থীদের কেউ সশরীরে শুভেচ্ছা বিনিময় করে দোয়া চাইছেন আবার কেউবা শুভাকাঙ্ক্ষীদের দিয়ে লিফলেট বিতরণ করাচ্ছেন।

মাধ্যমিক শাখার (৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণী) অভিভাবক প্রতিনিধি পদপ্রার্থী মো. ওহেদুজ্জামান মন্টু শুভেচ্ছা বিনিময়কালে বলেন, ‘তার মেয়ে এ স্কুল থেকে পাস করে বুয়েটে পড়াশুনা করছে। এ স্কুলের সঙ্গে নিবিড় সমপর্ক বহুদিনের। তাই এই নির্বাচনে অংশ নেয়।’

তিনি অভিভাবকদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে বলছিলেন, ‘আপনার/আপনাদের যেকোনো সমস্যায় ডাকলেই ছুটে আসব, দোয়া করবেন।’

প্রাথমিক শাখায় (১ম থেকে ৫ম শ্রেণী) গভর্নিং বডি নির্বাচন-২০১৯ সংরক্ষিত নারী আসনে পদপ্রার্থী তিন্না খুরশীদ জাহান মালার পক্ষে একজন নারী শুভাকাঙ্ক্ষী অভিভাবক প্রচারণা চালাচ্ছিলেন। তিনি বলেন, ‘মালা আপা গতবার নির্বাচিত হয়ে অনেক কাজ করেছেন। তার পক্ষে নিজে থেকেই কাজ করছি। নির্বাচিত হলে আমাদের শিক্ষার্থীদের ন্যায্য অধিকার নিয়ে কাজ করবেন।’

এমইউ/এসআর/পিআর