ভিকারুননিসায় শূন্য আসনে শিক্ষার্থী ভর্তি বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:০৪ পিএম, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০
ফাইল ছবি

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে শূন্য আসনের ভর্তি কার্যক্রম বাতিল করা হয়েছে। গত ২৪ জানুয়ারি ভর্তি পরীক্ষা হলেও আইনি জটিলতার কারণে কোনো শিক্ষার্থীকে ভর্তি করা হচ্ছে না।

শনিবার (২৯ জানুয়ারি ) এ সংক্রান্ত নোটিশ জারি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ফওজিয়া।

অধ্যক্ষ ফওজিয়া জানান, আদালতের নির্দেশে ভিকারুননিসা নূন স্কুলের সকল ভর্তি কার্যক্রম বাতিল করতে বলা হয়। পরে প্রতিষ্ঠানের পরিচালনা কমিটি নির্দেশ বাস্তবায়নে এ সংক্রান্ত একটি সভা করে। তবে ভর্তি পরীক্ষার আবেদনকারীদের অর্থ ফেরত দেয়া হবে।

এর আগে এই ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে আইনি জটিলতা দেখা দিলে গত ৩১ জানুয়ারি পরীক্ষার ফল সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়। দ্বিতীয় থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থী ভর্তি কার্যক্রম বাতিল করা আবেদনের টাকা ফেরত দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ। আবেদনপত্রের ফি হিসাবে ২০০ টাকা করে নেয়া হয়েছিল। আগামী ৩ থেকে ১০ মার্চ সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের মূল শাখার (বেইলি রোড) কার্যালয় থেকে আবেদনপত্রের ফি অভিভাবকদের ফেরত নিতে বলা হয়েছে। এ জন্য মূল প্রবেশপত্র দেখাতে হবে।

এদিকে শনিবার (২৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশের দাবিতে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা। ভিকারুননিসার প্রধান ফটকের সামনে বিক্ষোভ করেন তারা। এ সময় আগামী ৫ দিনের মধ্যে ফল প্রকাশ করা না হলে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দেন বিক্ষোভকারীরা।

তারা জানান, গত ২৪ জানুয়ারি ভিকারুননিসার স্কুল শাখার ২য় থেকে ৯ম শ্রেণি পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। গত ২৯ জানুয়ারির মধ্যে ফল প্রকাশ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু এক মাস পার হয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত ফল প্রকাশ করছে না স্কুল কর্তৃপক্ষ। এদিকে, ফল প্রকাশ না করায় বাচ্চাদের কোথাও ভর্তি করাতে পারছেন না বলে জানান অভিভাবকরা।

তারা আরও জানান, ভিকারুননিসার অভ্যন্তরীণ আইনি ঝামেলায় ফল প্রকাশ হচ্ছে না বলে জানিয়েছে স্কুল প্রশাসন। তবে কবে ফল প্রকাশ হবে এ বিষয়ে কিছুই জানায়নি তারা।

এদিকে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা জানায়, পাস-ফেল যাই হোক, আমরা চাই আমাদের ফল প্রকাশ করা হোক। আগামী ৫ দিনের মধ্যে আমাদের ফল প্রকাশ করতে হবে। না হলে আমরা কঠোর আন্দোলনে যাব।

এমএইচএম/এমএসএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]