নিজ ভবনে স্থানান্তর না হলে স্কুল-কলেজের এমপিও বাতিল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩১ পিএম, ০৫ আগস্ট ২০২০

আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজ ভবনে স্থানান্তর করতে নির্দেশনা দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। নির্ধারিত সময়ের পরও ভাড়া বাড়িতে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হলে এমপিও বাতিল করা হবে বলেও মন্ত্রণালয় সতর্ক করে দিয়েছে।

জানা গেছে, দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর গত বছরের অক্টোবরে ২ হাজার ৭৩০ প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করে সরকার। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যেগুলো ভাড়া বাড়িতে রয়েছে তাদের নিজস্ব জায়গায় যাওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে তাদের নিজস্ব জায়গায় যেতে হবে। অন্যথায় নীতিমালা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, গত বছরের অক্টোবরে যেসব প্রতিষ্ঠানকে এমপিওভুক্ত করা হয়েছে সেসব প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে নিজস্ব জায়গার বিষয়টি শর্তে ছিল না। নতুন করে এ শর্তারোপ করায় এসব প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে কী প্রক্রিয়া অবলম্বন করা হবে, সেটি এখনও খোলাসা করতে রাজি নয় মন্ত্রণালয়।

আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে নিজ ভবনে এসব প্রতিষ্ঠান স্থানান্তরিত না হলে তাদের এমপিওভুক্ত বাতিল করা হবে বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, ‘যে সব প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হয়েছে কিন্তু ভাড়া বাড়িতে রয়েছে তাদের আমরা সুযোগ দিতে চাই। এক্ষেত্রে পাঁচ বছর সময় পাবেন তারা। এর মধ্যে তারা নিজস্ব জায়গায় যেতে না পারলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

‘তবে সেটি কেমন হতে পারে সে বিষয়ে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। আমাদের আরও কয়েকটি বৈঠক হবে এমপিও নীতিমালা নিয়ে। সেসব বৈঠকে বিষয়টি চূড়ান্ত করা হবে।’

সচিব বলেন, স্কুল-কলেজের জন্য স্থায়ী ক্যাম্পাস বা নিজস্ব জায়গায় যাওয়ার বিষয়টি এমপিও নীতিমালায় নতুন করে যুক্ত করা হয়েছে। কিন্তু আমরা পরে যেসব প্রতিষ্ঠানকে নিয়ে আসব তাদের এই শর্তে এমপিও দেয়া হবে।

তিনি বলেন, এবারের এমপিওভুক্তির বিষয়ে কিছু ত্রুটি আমরা পেয়েছি। এগুলো যাতে পুনরায় না ঘটে সে বিষয়ে আমরা গুরুত্ব দেব। নতুন নীতিমালায় এসব বিষয় খুবই দৃঢ়তার সঙ্গে উপস্থাপন করা হবে।

এদিকে গতকাল মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, ইতোমধ্যে এমপিভুক্ত হওয়া ভাড়া বাড়িতে থাকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে পাঁচ বছরের মধ্যে নিজস্ব জায়গায় স্থানান্তর করতে হবে। এছাড়া কোনো ট্রাস্ট বা সংস্থার মাধ্যমে পরিচালিত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ট্রাস্ট বা সংস্থার সদস্যদের মতের ভিত্তিতে এমপিও ভুক্ত করা হবে। যেসব প্রতিষ্ঠান ইতোমধ্যে এমপিওভুক্ত হয়েছে, যদি ট্রাস্ট না চায়, সেগুলোর এমপিও বাতিল করা হবে। ওইসব প্রতিষ্ঠানে এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা চাইলে অন্য এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চাকরি করতে পারবেন।

এছাড়া ভবিষ্যতে ট্রাস্টের কোনো প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির জন্য আবেদন করলে ট্রাস্টের পূর্বানুমোদন নিতে হবে— জানান মন্ত্রী।

এমএইচএম/এমএআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]