আন্তর্জাতিক ইকোনমিকস অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশের ব্রোঞ্জ জয়

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:১৭ পিএম, ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

 

দেশের জন্য আবারও সুনাম বয়ে আনলো একদল কিশোর-কিশোরী। গত ৭ সেপ্টেম্বর থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক ইকোনমিকস অলিম্পিয়াডে বাংলাদেশ জাতীয় দলের চার প্রতিযোগী ব্যক্তিগত ব্রোঞ্জ পদক এবং বিজনেস কেস সলভিং রাউন্ডে দলীয় ব্রোঞ্জ পদক অর্জন করেছে।

পদকজয়ীরা হলো- এসএফএক্স গ্রিনহেরাল্ড ইনটারন্যাশনাল স্কুলের ছাত্র দর্পণ বড়ুয়া ও ফারিহা জামান প্রমি, সানিডেল স্কুলের ছাত্র সৈয়দ নাজিফ ইশরাক এবং সানবিমস স্কুলের ছাত্র ফারাজ মহিউদ্দিন চৌধুরী। দলনেতারা হলেন ঢাকা স্কুল অব ইকনোমিকসের লেকচারার আল আমিন পারভেজ এবং ঢাকার ক্যাপস্টোন স্কুল’র চেয়ারম্যান আক্তার আহমেদ। এছাড়া এসএফএক্স গ্রিনহেরাল্ড স্কুলের অপর প্রতিযোগী ইসফার জাওয়াদ ফিনান্সিয়াল লিটারেসি রাউন্ডে চমৎকার পারফরম্যান্স করে। প্রথমবারের মতো দেশকে পাঁচটি ব্রোঞ্জ পদক এনে দিয়েছে এই অলিম্পিয়াড।

আন্তর্জাতিক ইকোনমিকস অলিম্পিয়াড হলো স্কুল ও কলেজ পর্যায়ের অর্থনীতি বিষয়ক সবচেয়ে বড় প্রতিযোগিতা। আন্তর্জাতিক কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবে রয়েছেন ২০০৭ এর নোবেল বিজয়ী এরিক মাসকিন। তিনি বর্তমানে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি ও গণিত বিভাগের প্রধান। এই প্রতিযোগিতায় ২৯টি দেশ অংশগ্রহণ করে।

বাংলাদেশ ইকোনমিকস অলিম্পিয়াড কমিটির মাধ্যমে ২০১৯ সাল থেকে এ প্রতিযোগিতায় অংশ নিচ্ছে বাংলাদেশ দল। এ বছর দেশব্যাপী বাছাইপর্বের মাধ্যমে প্রায় আটশ’ প্রতিযোগীর মধ্য থেকে বাছাই করা হয় সেরা ১০ জনকে। এরপর মাসব্যাপী প্রশিক্ষণ শেষে সেরা পাঁচজন অংশ নেন আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতায়।

আয়োজনটি এ বছর কাজাখস্তানে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও করোনাভাইরাস মহামারির কারণে অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিযোগিতাটি ফাইন্যান্সিয়াল লিটারেসি রাউন্ড, ইকোনমিকস অলিম্পিয়াড এবং বিজনেস কেস সলভিং রাউন্ডে বিভক্ত। বাংলাদেশ দল ফাইনান্সিয়াল লিটারেসি রাউন্ডে ২৯টি দেশের মধ্যে পঞ্চম স্থান অধিকার করে এবং বিজনেস কেস রাউন্ডে রাশিয়া, কানাডা, যুক্তরাষ্ট্র, ভারত, মালয়েশিয়া, ইরান, ইন্দোনেশিয়ার মতো দলকে পরাজিত করে ব্রোঞ্জ পদক অর্জন করে। এ বছর প্রতিযোগিতার জাজিং প্ল্যাটফর্ম হিসাবে কাজ করেছে PROTIJOG.COM। প্রতিযোগিতাটির মিডিয়া পার্টনার ছিল ইংরেজি দৈনিক দ্য ডেইলি স্টার।

বাংলাদেশ ইকোনোমিকস অলিম্পিয়াড কমিটির নেতৃত্বে থাকা বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ এবং সমাজকর্মী কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ এ বিজয়ে অভিনন্দন জানিয়ে বলেছেন, ‘এই অদম্য তরুণদের হাত ধরেই একদিন গড়ে উঠবে স্বপ্নের বাংলাদেশ।’

তিনি ইভেন্টের অর্গানাজিং কমিটিকেও অভিবাদন জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ দলের এ সাফল্যের ব্যাপারে বাংলাদেশ ইকোনমিক অলিম্পিয়াড কমিটির অর্গানাইজিং কমিটির প্রেসিডেন্ট তাহসিনুল ইসলাম বলেন, ‘দুই বছর ধরে আমরা এই অলিম্পিয়াড আয়োজন করে আসছি। এ বছরের সাফল্য আমাদের এই প্রচেষ্টাকে আরও সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবে।’

এ প্রসঙ্গে কমিটির সমন্বয়ক রাফিদ আবরার বলেন, ‘এটি আমাদের দেশের জন্য অনেক বড় একটি অর্জন। আজকে পুরো বাংলাদেশের জন্য এটি একটি উৎসবের মুহূর্ত।’

এইচএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]