উত্তরপত্র মূল্যায়ন না করেই শিক্ষার্থীকে পাস, ২ কর্মকর্তা বহিষ্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:১৯ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

উত্তরপত্র মূল্যায়ন না করেই শিক্ষার্থীদের এইচএসসি পরীক্ষায় (বিএম) পাস করিয়ে দেয়ায় কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের (বিটিইবি) শীর্ষ পর্যায়ের দুই কর্মকর্তাকে বহিষ্কার করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

তারা হলেন- পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক সুশীল কুমার পাল ও উপপরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শামসুল আলম। গতকাল বুধবার এ আদেশ জারি করা হয়েছে।

কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের উপসচিব রহিমা আক্তার স্বাক্ষরিত আদেশে বলা হয়, দুই কর্মকর্তা ২০১৯ সালের উল্লিখিত পরীক্ষায় উত্তরপত্র মূল্যায়ন না করে শিক্ষার্থীদের ফল প্রকাশ করেন। বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে।

এইচএসসি ছাড়া এসএসসিতে পরীক্ষাতেও দুই কর্মকর্তাসহ বিটিইবির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ শাখার আরও কয়েকজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে একাধিক বছর এ ধরনের জালিয়াতির ঘটনা তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। বিশেষ করে ২০১৯ সালের এসএসসি ভোকেশনাল পরীক্ষায় জালিয়াতি করে ১২৮ শিক্ষার্থীকে পাস করানো হয়েছে। চারটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের এসব শিক্ষার্থী নবম শ্রেণিতে লেখাপড়াই করেনি। অথচ সরাসরি এসএসসি পাস করানোর ব্যবস্থা করে দেয় প্রভাবশালী সিন্ডিকেট।

এ সিন্ডিকেটে বোর্ডের ৬ কর্মকর্তাসহ ৪ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কয়েকজন শিক্ষক জড়িত।

বিটিইবির তদন্ত প্রতিবেদনে যাদের নাম এসেছে তারা হলেন— কম্পিউটার সেলের প্রধান সিস্টেম অ্যানালিস্ট সামসুল আলম, তিন সহকারী প্রোগ্রামার মোহাম্মদ হাসান ইমাম, মোহাম্মদ শামীম রেজা ও ওমর ফারুক। দুই কম্পিউটার অপারেটর হলেন মো. আল-আমিন ও আতিকুর রহমান।

এমএইচএম/এফআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]