কলেজ ছাত্রাবাস বন্ধ ও নিরাপত্তা জোরদারের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৫০ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

দেশের সব সরকারি ও বেসরকারি ছাত্রাবাস বন্ধ এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জরুরি নির্দেশনা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)।

মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) মাউশির উপ-পরিচালক (কলেজ-১) প্রফেসর শাহ মো. আমির আলী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা দেয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে ৯টি নির্দেশনা দিয়ে বলা হয়, বিশ্বব্যাপী নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ১৮ মার্চ থেকে অদ্যাবধি দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ। প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার ফলে কলেজ ক্যাম্পাসগুলোতে নিরাপত্তা বজায় রাখাসহ কলেজের সব সরকারি সম্পদ ও সরঞ্জামের সুরক্ষা নিশ্চিত করার ব্যাপারে প্রতিষ্ঠান প্রধানদের তৎপর থাকতে হবে।

দীর্ঘদিন কার্যক্রম বন্ধ থাকা কলেজ ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা এবং সুরক্ষাসহ সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়নে নিচের পদক্ষেপসমূহ জরুরিভিত্তিতে বাস্তবায়নের জন্য প্রতিষ্ঠান প্রধানদের বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে-

১. অনলাইন ক্লাস কার্যক্রম চালু রাখতে হবে এবং আঞ্চলিক পরিচালককে ক্লাস গ্রহণের তথ্য প্রদান করতে হবে।

২. প্রতিষ্ঠানে ভিজিল্যান্স টিম গঠন করতে হবে এবং প্রতিষ্ঠান প্রধানের কাছে নিয়মিত পরিদর্শন প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।

৩. শিক্ষার্থীদের অনলাইনে অংশগ্রহণ মনিটরিং এবং অভিভাবকের সঙ্গে সংযোগ রক্ষা করতে হবে।

৪. শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নিৰ্দেশনা প্রদান করতে হবে।

৫. কলেজ ক্যাম্পাসে বিনা প্রয়োজনে জনসাধারণের প্রবেশ নিষিদ্ধ করতে হবে।

৬. কলেজের ল্যাবসহ সার্বিক সরকারি সম্পত্তি ও নথি রক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

৭. ছাত্রাবাসসমূহ বন্ধ রাখতে হবে এবং ছাত্রাবাসে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।

৮. প্রতিষ্ঠানের মূল ফটকসহ সব প্রবেশপথে সার্বক্ষণিক প্রহরী নিয়োজিত রাখতে হবে। এবং

৯. স্থানীয় প্রশাসনের সহযোগিতায় ক্যাম্পাসে পুলিশ টহল জোরদার করতে হবে।

এসব নির্দেশনার পাশাপাশি বর্তমানে কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের কারণে বন্ধ সরকারি ও বেসরকারি কলেজে সরকারি নির্দেশনা বাস্তবায়ন করতে নির্দেশ দেয়া হয়।

এমএইচএম/এসআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]