বড় চ্যালেঞ্জ নিয়ে প্রাথমিকের মহাপরিচালকের যোগদান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:২৭ পিএম, ২০ অক্টোবর ২০২০

মানসম্মত শিক্ষা, যুগোপযোগী শিক্ষক, প্রশিক্ষণ, শিশুদের বইয়ের বোঝা কমানো ও পাঠদান আনন্দদায়ক করে তোলাসহ স্বাস্থ্যবিধি মেনে করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফেরাতে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সচেতন করে তোলার চ্যালেঞ্জ নিয়েই প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের (ডিপিই) দায়িত্ব নিচ্ছেন নব্যনিয়োগপ্রাপ্ত মহাপরিচালক অতিরিক্ত সচিব আলমগীর মুহাম্মদ মনসুরুল আলম।

মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আলাপকালে জাগো নিউজকে এসব কথা জানান তিনি।

এ এম মনসুরুল আলম বলেন, ‘করোনা পরিস্থিতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পুনরায় চালুর আগেই সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন করা হবে। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে ও এর পরবর্তীতে পাঠদান কার্যক্রম চালিয়ে নিতে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সচেতন করে তোলা হবে। এ জন্য কার কি করণীয় সেসব বিষয়ে লিফলেট বিতরণ ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে আলোচনা সভা করে সকলকে সচেতন করে তোলা হবে।’

পহেলা জানুয়ারিতে শিশুদের হাতে নতুন পাঠ্যপুস্তক তুলে দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

নতুন মহাপরিচালক বলেন, ‘আমাদের মূল লক্ষ্য- মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করা। এ জন্য প্রয়োজনে শিক্ষকদের উন্নতমানের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে। শিক্ষকরা শিখলে আমাদের শিক্ষার্থীরা শিখবে। শিক্ষার্থীরাই আমাদের প্রাণকেন্দ্র। শিক্ষার্থীদের পড়ালেখায় মনোযোগী করে তুলতে গতানুগতিক কারিকুলাম পরিবর্তন এনে তা সহজ ও আনন্দদায়ক করে তোলা হবে। কমিয়ে আনা হবে শিশুদের বইয়ের বোঝাও।’

তিনি বলেন, ‘পাঠদানকে আনন্দদায়ক ও বইয়ের বোঝা কমাতে আমরা পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের সঙ্গে কয়েক দফায় আলোচনা করেছি। বর্তমানে এই বিষয়গুলো নিয়ে কাজ শুরু হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্যে এসব বাস্তবায়নের চেষ্টা করা হবে। প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের কিন্ডারগার্টেনমুখী থেকে ফেরানো হবে। কোচিং এবং শিক্ষক নির্ভর কমানো হবে। প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে ই-লার্নিং, ই-টিউটোরিয়াল পদ্ধতি চালু করা হবে। এতে করে যেকোনো সময় ভালো শিক্ষকদের ক্লাস ইচ্ছেমতো দেয়ার সুযোগ পাবে।’

এমএইচএম/এফআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]