৭ দাবিতে ইবতেদায়ি মাদরাসা শিক্ষকদের অবস্থান অব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৪২ পিএম, ১৮ নভেম্বর ২০২০

বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের পক্ষ থেকে রেজিস্ট্রেশনপ্রাপ্ত সকল ইবতেদায়ি মাদরাসা জাতীয়করণের ঘোষণাসহ ৭ দফা দাবিতে অবস্থান ধর্মঘট অব্যাহত রয়েছে।

বুধবার (১৮ নভেম্বর) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ স্বতন্ত্র মাদরাসা শিক্ষক সমিতি চতুর্থ দিনের মতো এ কর্মসূচি পালন করে।

শিক্ষক সমিতির মহাসচিব কাজী মোখলেছুর রহমান বলেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন ধরে আমাদের দাবি জানিয়ে আসছি। ২০১৮ সালে আমাদের ধর্মঘট ও অনশন চলাকালে সরকারের নির্দেশে সংশ্লিষ্ট দফতরের সচিব শিক্ষক সমিতির দাবি মেনে নেয়ার বিষয়ে আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্তু এখনও তা বাস্তবায়ন হয়নি।’

এ বিষয়ে বরগুনা ও পটুয়াখালী জেলার দুই মাদরাসা শিক্ষকের সঙ্গে কথা হয়। তারা বলেন, ‘সারাদেশের ইবতেদায়ি মাদরাসার শিক্ষকরা প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান করছি। যতক্ষণ পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী কিংবা শিক্ষামন্ত্রীর পক্ষ থেকে জাতীয়করণের ঘোষণা না দেয়া হবে ততক্ষণ পর্যন্ত আমাদের অবস্থান ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।’

প্রয়োজনে জাতীকরণের ঘোষণার দাবিতে সমিতির পক্ষ থেকে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে বলেও জানান।

তাদের ৭ দফা দাবিগুলো হলো- প্রাইমারির ন্যায় সকল স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা মহাসমাবেশের মাধ্যমে জাতীয়করণের ঘোষণা, কোডবিহীন মাদরাসাগুলো বোর্ড কর্তৃক কোড নম্বরে অন্তর্ভুক্ত করা, স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসা নীতিমালা-২০১৮ সংশোধন করে আলিম শিক্ষক একজনের পরিবর্তে এইচএসসি পাস একজনকে অন্তর্ভুক্ত করা, প্রাইমারির ন্যায় স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসায় অফিস সহায়ক নিয়োগ, মাদরাসার শিক্ষকদেরকে পিটিআই ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করা, ইবতেদায়ি মাদরাসায় আসবাবপত্রসহ ভবন নির্মাণ ও স্বতন্ত্র ইবতেদায়ি মাদরাসার স্থায়ী রেজিস্ট্রেশনের ব্যবস্থা করা।

ধর্মঘটে শিক্ষক সমিতির সভাপতি কাজী ফয়েজুর রহমান, দফতর সম্পাদক ইনতাজ বিন হাকিম ও বাংলাদেশ আওয়ামী ওলামা লীগের সদস্য সচিব মুফতি মাসুম বিল্লাহ নাফিয়ীসহ কেন্দ্রীয় কমিটি ও জেলা কমিটির মাদরাসা শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

আলী ইউনুস/এফআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]