প্রাথমিকে আবেদনের ভুল সংশোধন করা যাবে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১৩ পিএম, ২৯ নভেম্বর ২০২০

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার আবেদনে তথ্যগত ভুল সংশোধনের সুযোগ দিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর (ডিপিই)। শনিবার (২৮ নভেম্বর) থেকে ভুল সংশোধনের কাজ শুরু হয়েছে। এটি চলবে ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত। ডিপিই সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

অনলাইনে আবেদনের সময় কোনো তথ্যগত ভুল করে থাকলে সেটা সংশোধন করতে পারবেন আবেদনকারীরা।

ডিপিই থেকে জানা যায়, আবেদন ফি পরিশোধ করা প্রার্থীরা শনিবার (২৮ নভেম্বর) থেকে তাদের ভুল সংশোধন করতে পারছেন। এই সুযোগ চলবে আগামী ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত। সার্টিফিকেট সংক্রান্ত জটিলতা থাকা প্রার্থীদের স্ব স্ব শিক্ষা বোর্ড থেকে সংশোধন করতে হবে। উল্লেখিত সময়ের মধ্যে যারা সংশোধনের জন্য আবেদন করবেন তা ঠিক করতে আবেদনকারীকে লিংক পাঠানো হবে। সেই লিংক খুলে প্রার্থী ভুল তথ্য সংশোধন করতে পারবেন।

অনলাইনে আবেদনের অ্যাকাডেমিক সার্টিফিকেট গ্রহণ না করা, বিশ্ববিদ্যালয় যুক্ত না থাকায় আবেদন সম্পন্ন না হওয়া, জেন্ডার (লিঙ্গ) নির্বাচনে ভুল, মোবাইল নম্বর পরিবর্তনসহ বিভিন্ন ধরনের জটিলতার সম্মুখীন হন আবেদনকারীরা। বিষয়গুলোকে গুরুত্ব দিয়ে আবেদনে ভুল সংশোধন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিপিই।

এদিকে বিজ্ঞপ্তি অনুসারে প্রার্থীদের বয়স ২০ অক্টোবর পর্যন্ত সর্বনিম্ন ২১ বছর এবং গত ২৫ মার্চ পর্যন্ত সর্বোচ্চ ৩০ বছর হতে হবে। মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও শারীরিক প্রতিবন্ধীদের ক্ষেত্রে এ বয়সসীমা হবে ২৫ মার্চ পর্যন্ত ৩২ বছর। শিক্ষাগত যোগ্যতার ক্ষেত্রে যেকোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে দ্বিতীয় শ্রেণি বা সমমানের সিজিপিএসহ স্নাতক (সম্মান) বা সমমানের ডিগ্রি থাকতে হবে। আবেদন ফি নির্ধারণ করা হয়েছে ১১০ টাকা।

এবারের বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সারাদেশে ২৫ হাজার ৬৩০ জন প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষক এবং ৬ হাজার ৯৪৭টি সহকারী শিক্ষক শূন্য পদে নিয়োগ দেয়া হবে। প্রায় ১৩ লাখ আবেদন জমা হয়েছে। আবেদনপ্রক্রিয়া শেষ হয়েছে ২৪ নভেম্বর রাত ১১টা ৫৯ মিনিটে, যা শুরু হয়েছিল ২৫ অক্টোবর থেকে অনলাইনে।

এমএইচএম/এআরএ/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]