নামে মিল থাকায় জালিয়াতির শিকার ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের শিক্ষার্থী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:০৭ পিএম, ০১ ডিসেম্বর ২০২০

শিক্ষার্থী ও বাবা-মায়ের নাম পরিবর্তন করে ঢাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে সার্টিফিকেট তুলে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে । ফলে নকল ব্যক্তির কারণে আসল শিক্ষার্থীই এখন বিপদে পড়েছেন বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী আবু সুফিয়ান জানান, চলতি বছরের ১৪ নভেম্বর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক পদে চাকরির আবেদন করতে গিয়ে বিষয়টি ধরা পড়ে।

তিনি বলেন, ‘চাকরির আবেদনে রেজিস্ট্রেশন নম্বর দেয়ার পর দেখা গেল সেখানে আমার (আবু সুফিয়ান) নাম নেই। একইসঙ্গে আমার বাবা-মায়ের নামও নাই। পরবর্তীতে বোর্ডে গেলে জালিয়াতির বিষয়টা পরিষ্কার হয়। বাবা-মায়ের নাম পরিবর্তন করে আমার রেজিস্ট্রেশন নম্বরের পরিবর্তে এসএসসি ও এইচএসসির নকল সার্টিফিকেট তুলে নেয়া হয়েছে।’

নামের পরিবর্তন হিসেবে- ছাত্র: ‘Abu Suphian’-এর পরিবর্তে ‘Abu Sufian’, বাবার নাম ‘Md Sonam Uddin’-এর পরিবর্তে ‘Md Sohidul Islam’, মা: ‘Razia Begum’-এর পরিবর্তে ‘Zinnatun Begum’ করা হয়েছে।

মূল ছাত্র আবু সুফিয়ান ঢাকা কলেজের (২০১০-১১) সেশনের পরিসংখ্যানের ছাত্র। তিনি ২০০৮ সালে মানিকগঞ্জ থেকে এসএসসি ও ২০১০ সালে ঢাকা রেসেডেনসিয়াল মডেল কলেজ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন।

এ বিষয়ে ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের সদ্যবিদায়ী চেয়ারম্যান মু. জিয়াউল হকের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি কিছু জানাতে পারেননি। আজই (মঙ্গলবার) বোর্ডের নতুন চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেয়ার কথা।

তবে বোর্ড সচিব অধ্যাপক তপন কুমার সরকার এ বিষয়ে বলেন, ‘আগামী সাত দিনের মধ্যে এ সমস্যার সমাধান করা হবে।’

এ ঘটনায় প্রকৃত দোষীদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে শাস্তি দেয়ারও আশ্বাস দেন তিনি।

এমএইচএম/এসএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]