তালা ভেঙে প্রবেশকারীদের অবিলম্বে হল ত্যাগের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:০৬ পিএম, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১
ফাইল ছবি

দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে আবাসিক হলের ফটকের তালা ভেঙে প্রবেশ করার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। অবিলম্বে এসব শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগ করার নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ভার্চুয়ালি এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষামন্ত্রী এ নির্দেশনা দেন।

ডা. দীপু মনি বলেন, এক শ্রেণির মানুষ বর্তমান সরকারকে নানাভাবে ঝামেলায় ফেলার চেষ্টা করলেও তারা ব্যর্থ হয়েছে। বর্তমানে তাদের মতাদর্শের কিছু শিক্ষার্থীদের দিয়ে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের বন্ধ থাকা আবাসিক হলের তালা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করতে উসকিয়ে দেয়া হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, কেউ কেউ বিসিএস পরীক্ষার প্রস্তুতির নেয়ার জন্যও হলে ওঠার চেষ্টা করছে। সব বিষয় বিবেচনা করে আগামী ২৪ মে (পবিত্র ঈদুর ফিতরের পর) থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্লাস-পরীক্ষা শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ১৭ মে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সব আবাসিক হল খুলে দেয়া হবে।

প্রথমে জোর করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থীরা আবাসিক হলগুলোর ফটকের তালা ভেঙে প্রবেশ করেন। এরপর ঢাবি, রাবিসহ আরও কিছু বিশ্ববিদ্যালয়ে হল খোলার দাবিতে আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে। সবশেষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও জোর করে হলে প্রবেশ করে অবস্থান নেন।

এমন পরিস্থিতিতে জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডেকে পবিত্র ঈদুর ফিতরের পর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ক্লাস-পরীক্ষা চালুর কথা জানালেন শিক্ষামন্ত্রী। সেই সঙ্গে জোর করে হলে প্রবেশ করা শিক্ষার্থীদের অবিলম্বে তিনি হল ত্যাগের নির্দেশ দেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও আবাসিক হলগুলো দীর্ঘ এক বছর থেকে বন্ধ রয়েছে। স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বর্তমানে সেগুলো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করতে হবে। ক্যাম্পাস ও আবাসিক হল খোলার পরে সবাই যাতে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে পারে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে সে ব্যবস্থা করতে হবে।

দীপু মনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পর সবার সুরক্ষায় শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের করোনা ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে। এজন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে তাদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। দ্রুত সেটি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। বর্তমানে শিক্ষকদের টিকা প্রদান কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

এমএইচএম/এমআরআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]