দারুল ইহসানের সনদের বৈধতা নিয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ব্যাখ্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:১৯ পিএম, ০২ মার্চ ২০২১

বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় দারুল ইহসানের সব শিক্ষার্থীর সনদের বৈধতা দেয়ার কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন ভুয়া বলে প্রতিবাদলিপি দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ (মাউশি)।

মঙ্গলবার (২ মার্চ) মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব শামিমা বেগমের সই করা প্রতিবাদলিপিতে জানানো হয়, গত ১৯ ফেব্রুয়ারি দৈনিক শিক্ষা নামে একটি পত্রিকায় মিথ্যা সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদে বলা হয়, সনদ বিক্রিসহ বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগে আদালতের আদেশে বন্ধ করে দেয়া দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্জিত সনদের বৈধতা দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বিশ্ববিদ্যালয়টির ২৯টি ক্যাম্পাসের সব শিক্ষার্থীর সনদের বৈধতা দেয়ার বিষয়ে সম্মতি দিয়েছে মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ। একই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের মূল সনদ ইস্যু করতে পরিচালনা পর্ষদ সদস্যদের তালিকা প্রস্তাব করতে বলা হয়েছে।

চিঠির বরাত দিয়ে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক মাহমুদ আহমেদের অনুকূলে বৈধ ২৯টি ক্যাম্পাসের সব শিক্ষার্থীর সনদের বৈধতা দেয়ার সম্মতি দেয়া গেল এবং একই সঙ্গে শিক্ষার্থীদের মূল সনদ ইস্যু কার্যক্রমের জন্য পরিচালনা পর্ষদের তিনজনের তালিকা প্রস্তাব পাঠানোর জন্য অনুরোধ করা হলো।

প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়েছে, প্রকৃতপক্ষে দারুল ইহসান বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুকূলে ২৯টি ক্যাম্পাসের সব শিক্ষার্থীর সনদের বৈধতা দেয়া এবং শিক্ষার্থীদের মূল সনদ ইস্যু কার্যক্রম কিংবা সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ে গৃহীত হয়নি এবং এ বিষয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়-১ শাখা থেকে কোনো পত্র জারি করা হয়নি।

প্রচারিত সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত উল্লেখ করে এ ধরনের মিথ্যা ও প্রতারণামূলক সংবাদের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে মন্ত্রণালয়।

এমএইচএম/এআরএ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]