নিয়োগ পরীক্ষায় নকল ঠেকাতে অভিনব কৌশল মাউশির

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৯ পিএম, ১৬ মার্চ ২০২১

সারাদেশে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের জন্য বুক সর্টার, নিরাপত্তা প্রহরী, মালি ও পরিচ্ছন্নতাকর্মী এ চার ক্যাটাগরিতে চার হাজারের বেশি নিয়োগ দেবে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। আগামী শনিবার (২০ মার্চ) রাজধানীর ১৩টি কেন্দ্রে নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা আয়োজন করার কথা রয়েছে।

এ পরীক্ষায় নকল ও জালিয়াতি ঠেকাতে অভিনব কৌশল নিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর। বেলা ৩টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ঘণ্টাব্যাপী এ পরীক্ষায় যারা উত্তীর্ণ হবে, মৌখিক পরীক্ষায় তাদের হাতে লেখার সঙ্গে পরীক্ষা খাতার লেখা মিলিয়ে দেখা হবে। এতে যদি কোনো গরমিল পাওয়া যায় তাহলে ওই প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এছাড়া পরীক্ষা সংক্রান্ত এ বিজ্ঞপ্তিতে পরীক্ষার্থীদের ছয়টি নির্দেশনা দিয়েছে অধিদফতর। এগুলো হল- এ পরীক্ষার প্রবেশপত্র ওয়েবসাইট হতে ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে সঙ্গে আনতে হবে। এ সংক্রান্ত নির্দেশনা টেলিটকের মাধ্যমে প্রার্থীদের স্ব স্ব মোবাইল নম্বরে এসএমএস-এর মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে। এসএমএস-এর নির্দেশনা অনুযায়ী প্রবেশপত্র ডাউনলোড করা যাবে।

পরীক্ষার হলে প্রবেশের পূর্বে প্রয়োজনীয় তল্লাশি কার্যক্রম সম্পন্নের জন্য পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে এক ঘণ্টা পূর্বে স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী মুখে মাস্ক পরিধান করে প্রার্থীদের কেন্দ্রে উপস্থিত হতে হবে। প্রবেশপত্র ও মাস্ক ব্যতীত কোনো প্রার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন না।

পরীক্ষার্থী কোনোভাবেই পরীক্ষা কেন্দ্রে ফোন, ক্যালকুলেটর, ঘড়ি, প্রবেশপত্রের একাধিক কপি, অপ্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও অন্যান্য ইলেকট্রনিক ডিভাইস নিয়ে প্রবেশ করতে পারবেন না।

প্রবেশপত্রের ছবি ও স্বাক্ষরের সঙ্গে উপস্থিতিপত্রের ছবি ও স্বাক্ষর মিলিয়ে দেখা হবে। গরমিল পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং পরীক্ষা শেষে প্রার্থীরা নিজ নিজ আসনে অবস্থান করবেন বলে নির্দেশনায় জানানো হয়েছে।

হলের দায়িত্বে থাকা পরিদর্শকরা উত্তরপত্র ও প্রশ্নপত্র সংগ্রহ করে বুঝে নেয়ার পর প্রার্থীরা পরীক্ষা কক্ষ ত্যাগ করবেন। এছাড়াও প্রার্থীরা প্রশ্নপত্র নিয়ে যেতে পারবেন না বলে নির্দেশনায় জানানো হয়েছে।

এমএইচএম/এআরএ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]