গুচ্ছভর্তিতে বাড়ছে না সময়, আবেদন প্রায় ৩ লাখ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৫ পিএম, ১১ এপ্রিল ২০২১
ফাইল ছবি

বিশ্ববিদ্যালয়ে গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তির প্রাথমিক আবেদন কার্যক্রম আগামী ১৫ এপ্রিল শেষ হচ্ছে। তবে করোনা সংক্রমণ পরিস্থিতির মধ্যেও এ সময় আর বাড়ানো হবে না বলে জানা গেছে।

আগামী ২৩ এপ্রিল প্রাথমিক আবেদনের ফল প্রকাশ করা হবে। এরপর ২৪ এপ্রিল থেকে চূড়ান্ত আবেদন কার্যক্রম শুরু করা হবে।

গুচ্ছভর্তিতে রোববার (১১ এপ্রিল) বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত প্রায় ৩ লাখ আবেদন জমা পড়েছে বলে জানা গেছে।

গত ১ এপ্রিল দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে গুচ্ছ পদ্ধতিতে স্নাতক শ্রেণিতে প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার প্রাথমিক আবেদন শুরু হয়েছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য ও গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষাবিষয়ক টেকনিক্যাল সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর রোববার জাগো নিউজকে বলেন, অনলাইন আবেদন শুরু হওয়ার পর ওয়েবসাইটে তেমন কোনো ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হয়নি। রোববার বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত ২ লাখ ৯২ হাজার ৮২৩টি আবেদন জমা হয়েছে। তার মধ্যে ‘এ’ ইউনিটে বিজ্ঞান বিভাগে ১ লাখ ৭১ হাজার ২৫৬টি, ‘বি’ ইউনিটে বাণিজ্য বিভাগে ৮০ হাজার ৬২৯টি এবং ‘সি’ ইউনিটিতে মানবিকে ৪০ হাজার ৯৩৭টি আবেদন এসেছে।

টেকনিক্যাল সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর বলেন, কোনো ধরনের অভিযোগ এলে সেগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবে সমাধান করা হচ্ছে। ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে অভিযোগকারীদের সমস্যা সমাধান করা হচ্ছে।

তিনি বলেন, বর্তমানে করোনা পরিস্থিতির কারণে আর্থিক সংকট তৈরি হওয়ায় সব বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের সংখ্যা কমে গেছে। অনেকে আবার ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে ভর্তির প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে আবেদনের সংখ্যা কিছুটা কম মনে হচ্ছে।

তবে গুচ্ছ ভর্তিতে আবেদনের সময় আর বাড়ানো হবে না বলে জানিয়ে অধ্যাপক ড. মুনাজ বলেন, ২৪ এপ্রিল চূড়ান্ত আবেদন কার্যক্রম শুরু করা হবে। এ ধাপে শিক্ষার্থীদের ছবি, কেন্দ্র চয়েস, আবেদন ফি প্রদান করতে হবে।

এছাড়া পরবর্তী করণীয় নির্ধারণে চলতি সপ্তাহে গুচ্ছ কমিটির বৈঠক হওয়ায় কথা রয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

এমএইচএম/এমআরআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]