তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে চাকরির সুযোগ চান ১৬তম নিবন্ধনধারীরাও

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০১:৫৯ পিএম, ২০ এপ্রিল ২০২১

৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগে তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। এতে ১-১৫তম নিবন্ধনধারী প্রার্থীরা আবেদনের সুযোগ পাচ্ছেন।

আর মৌখিক পরীক্ষা শেষ না হওয়ায় ১৬তম নিবন্ধন ধারীদের এখনো এতে যুক্ত করা সম্ভব হয়নি। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে মৌখিক পরীক্ষা শেষ করে ১৬তম নিবন্ধনধারীদের এই গণবিজ্ঞপ্তিতে যুক্ত করার দাবি উঠেছে।

১৬তম নিবন্ধনধারীদের দাবি, তাদের পরীক্ষা শেষ হওয়ার মাত্র সাতদিন বাকি থাকতেই তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়েছে। অথচ ১৪তম শিক্ষক নিবন্ধন প্রার্থীদের দ্বিতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে ভাইভা সম্পন্ন করেই রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে ১৩তম শিক্ষক নিবন্ধন প্রার্থীদের সঙ্গে আবেদনের সুযোগ দেয়া হয়েছিল। ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন প্রার্থীদের যেখানে এক বছর এক মাসের মধ্যে প্রিলি, রিটেন, ভাইভা শেষ হয়েছিল, সেখানে ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন প্রার্থীদের প্রায় আড়াই বছর চলে গেল। এখনো ভাইভা শেষ করতে পারছে না এনটিআরসিএ। যাতে দীর্ঘসূত্রিতার নতুন রেকর্ড হয়েছে।

তারা কয়েকটি দাবিও তুলে ধরেছেন। সেগুলোর মধ্যে রয়েছে:

১. যেহেতু বয়স ৩৫+ বিবেচনায় নেয়া হয়েছে সেহেতু এক মাস সময় বৃদ্ধি করে তাদের তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদনের সুযোগ দেয়া হোক।

২. যেহেতু মৌখিক পরীক্ষার নম্বর যোগ হয় না তাই মৌখিক পরীক্ষা দ্রুততম সময়ে সরাসরি বা ভার্চুয়াল মাধ্যমে শেষ করে আবেদনের সুযোগ দেয়া হোক।

৩. ১৪তমদের মতো নিবন্ধন সনদের রেজিস্ট্রেশন নম্বর প্রার্থীদের মোবাইল নম্বরে পাঠিয়ে আবেদনের সুযোগ দেয়া হোক।

৪. বিগত এক গণবিজ্ঞপ্তি থেকে আরেক গণবিজ্ঞপ্তির পার্থক্য আড়াই বছর। এই গণবিজ্ঞপ্তি না পেলে অধিকাংশ প্রার্থীর বয়স ৩৫+ হয়ে যাবে। যার ফলে তাদের শিক্ষক হওয়ার স্বপ্ন আর পূরণ হবে না।

৫. এনটিআরসিএ’র বিপক্ষে ৪০০ প্লাস মামলার দীর্ঘ সূত্রিতার কারণে চতুর্থ গণবিজ্ঞপ্তি হবে কি-না তাও নিশ্চিত করে বলা যায় না।

৬. করোনা মহামারির জন্য যেহেতু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কবে খুলবে তা নিশ্চিত করে বলা যায় না, সেহেতু গণবিজ্ঞপ্তিতে এক মাস সময় বাড়িয়ে দিয়ে আবেদনের সুযোগ দেয়া হোক।

এমএইচএম/এমআরআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]