আবরার হত্যায় বহিষ্কৃত শিক্ষার্থীর ক্লাসে যোগদান, প্রতিবাদ-ক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৪৩ পিএম, ২৬ মে ২০২১
ফাইল ছবি

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার ঘটনায় আজীবন বহিষ্কৃত আশিকুল ইসলাম বিটু হাইকোর্টের আদেশে ক্লাসে ফিরেছেন। এর প্রতিবাদে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থীরা।

তাকে পুনরায় স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের জন্য কার্যকর পদক্ষেপ নিতে ২৯ মে পর্যন্ত আলটিমেটাম দিয়েছেন বুয়েট শিক্ষার্থীরা। অন্যথায় ৩০ মে থেকে ক্লাস বর্জনের ঘোষণা দেন।

প্রাথমিক প্রতিবাদের অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার (২৭ মে) বেলা ১১টায় বুয়েট ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করবেন শিক্ষার্থীরা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে এ কর্মসূচি পালন করা হবে বলে বুয়েট শিক্ষার্থীদের ফেসবুক পেজে (বুয়েটিয়ান) ঘোষণা দেয়া হয়।

উল্লেখ্য, আদালতের স্টে অর্ডার নিয়ে চলমান টার্মের চারটি কোর্সে রেজিস্ট্রেশন করেছেন আশিকুল ইসলাম বিটু। গত ২২ মে কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অনলাইন ক্লাসে যোগদান করেন তিনি। কিন্তু শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদের মুখে তিনি আর ক্লাসে জয়েন করতে পারেননি।

বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পর ক্ষোভ প্রকাশ করেন বুয়েটের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ ঘটনায় বিটুকে পুনরায় স্থায়ী বহিষ্কারের জন্য কার্যকর পদক্ষেপ নিতে ২৯ মে পর্যন্ত সময় বেঁধে দেন তারা।

বুয়েটের শিক্ষার্থীরা জানান, আবরার হত্যা মামলার আসামি আশিকুল ইসলাম বিটুর চলমান টার্মের কোর্স রেজিস্ট্রেশন বাতিল এবং তিনি যেন কখনও ক্যাম্পাসে ফিরতে না পারেন তা নিশ্চিত করতে চান তারা। এরই অংশ হিসেবে বুয়েট ক্যাম্পাসে মানববন্ধন করবেন।

জানতে চাইলে এ বিষয়ে বুয়েটের ছাত্রকল্যাণ পরিদফতরের পরিচালক অধ্যাপক মিজানুর রহমান বলেন, আদালতের নির্দেশনা থাকায় আশিকুল ইসলাম বিটুকে ক্লাসে ফেরার সুযোগ দেয়া হয়েছে। তবে তার বহিষ্কারাদেশের ওপর আদালতের দেয়া স্থগিতাদেশের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে বুয়েটের পক্ষ থেকেও আইনিভাবে লড়াই করা হবে।

প্রসঙ্গত, ভারতের সঙ্গে চুক্তির বিরোধিতা করে ২০১৯ সালের ৫ অক্টোবর বিকেলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে একটি স্ট্যাটাস দেন বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার।

এর জেরে পরদিন রাতে বুয়েটের শেরেবাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে ডেকে নিয়ে তাকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করেন ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী। পরে তার লাশ সিঁড়িতে ফেলে রাখা হয়। নৃশংস এ হত্যা মামলায় ২৫ জনকে আসামি করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ।

এরপর চার্জশিটভুক্ত ২৫ আসামিসহ মোট ২৬ ছাত্রকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে বুয়েট কর্তৃপক্ষ। তাদের মধ্যে একজন হলেন আশিকুল ইসলাম বিটু, যিনি বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক ছিলেন।

এমএইচএম/জেডএইচ/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]