ভিকারুননিসায় অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের বিনা বেতনে অধ্যয়ন বহালের দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:১৮ এএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে পড়ুয়া এতিম এবং গরীব ও কর্মহীন অভিভাবকের সন্তানদের বিনা/অর্ধ বেতনে পড়ালেখার সুযোগ বহাল রাখার দাবি উঠেছে। আগে এ সুবিধা দেওয়া হলেও বর্তমান অধ্যক্ষ তাদের বঞ্চিত করছেন বলে অভিযোগ তোলা হয়েছে। এ নিয়ে গতকাল (সোমবার) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছেন অভিভাবকরা।

আবেদনে বলা হয়েছে, করোনা মাহামারিকালে আমরা নিম্ন ও মধ্যম আয়ের অভিভাবকরা নিদারুণ অর্থকষ্টের মধ্যে দিনাতিপাত করছি। আমাদের অনেকের আয়ের পথ বন্ধ হয়ে গেছে। অনেকে চাকরিচ্যুত, ব্যবসায় ক্ষতিগ্রস্ত। এমন পরিস্থিতিতে সংসারের প্রয়োজনীয় ব্যয় মেটাতে হিমশিম অবস্থায় সন্তানের পড়ালেখার খরচ বহন করা অসাধ্য হয়ে পড়েছে। নিরুপায় হয়ে সন্তানদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক/অধ্যক্ষসহ সংশ্লিষ্ট অভিভাবক প্রতিনিধিদের কাছে লজ্জার তোয়াক্কা না করে বেতন মওকুফের জন্য দ্বারস্থ হলেও কোনো লাভ হচ্ছে না। বিগত সময়ে আমাদের সন্তানরা বিনা বেতনে বা অর্ধ বেতনে পড়ালেখার সুযোগ পেলেও বর্তমানে তা বাতিল করা হয়েছে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, গত ৭০ বছরের ঐতিহ্যবাহী স্বনামধন্য ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে থেকে করোনা মহামারিকালে দুরবস্থার মধ্যে বিনা বেতন/ অর্ধ বেতনের কোনো সুযোগ পাচ্ছি না। তার উপরে কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে অধ্যক্ষ বেতন পরিশোধের নির্দেশ দিয়ে অভিভাবকদের ফোনে ও ফেসবুক ম্যাসেঞ্জার গ্রুপে শ্রেণি-শিক্ষকদের মাধ্যমে ভয়ভীতি দেখিয়েছেন। বেতন পরিশোধ করা না হলে স্কুল থেকে বের করে দেওয়া হবে বলেও কোনো কোনো অভিভাবককে জানানো হয়েছে।

আরও বলা হয়েছে, সম্প্রতি এ প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষের একটি অডিও ভাইরাল হওয়ার কারণে অভিভাবক ও ছাত্রীরা তাদের সমস্যা নিয়ে তার কাছে যেতে ভয় পাচ্ছেন। আমাদের সমস্যা, দুরবস্থার কথা জানাতে গেলে ভয়ভীতি দেখান অথবা সাক্ষাৎ করেন না।

এমন পরিস্থিতিতে কোথায় তাদের অভিযোগ জানাবেন তা জানতে চেয়ে দ্রুত এসব সমস্যা নিরসনের দাবিও জানিয়েছেন তারা।

এমএইচএম/এমএইচআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]