বন্ধ অনেক স্কুল-কলেজে নেই শেখ রাসেল দিবসের কর্মসূচি

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৪৩ পিএম, ১৮ অক্টোবর ২০২১

‘শেখ রাসেল দিবস’ উপলক্ষে যে কর্মসূচি পালনের কথা বলা হয়েছিল রাজধানীর অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে তা হয়নি। দেরি করে নির্দেশনা জারি ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে বলে একাধিক প্রতিষ্ঠানের প্রধানরা জানান।

এর আগে শেখ রাসেল দিবস উপলক্ষে ১৮ অক্টোবর কর্মসূচি পালনে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর থেকে (মাউশি) নির্দেশনা দেওয়া হয়েছিল।

jagonews24

নির্দেশনা থেকে জানা যায়, এদিন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কুইজ, রচনা ও ছবি আঁকার প্রতিযোগিতার আয়োজন এবং আলোচনা সভা করার কথা রয়েছে। আঁকা ছবি ও লেখাগুলো ২০ অক্টোবরের পর শিক্ষার্থীরা যেদিন তাদের শ্রেণি কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করবে, সেদিন শিক্ষকের কাছে জমা দেবে। কিন্তু অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এসব করা হয়নি।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সরেজমিনে দেখা গেছে, এদিন এটি তালাবন্ধ। সরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হলেও সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক কোনো ধরনের কর্মসূচি পালন করা হয়নি।

জানতে চাইলে এ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সৈয়দা জিন্নাতুল নূর জাগো নিউজকে বলেন, ১১ অক্টোবর থেকে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় অনেক শিক্ষক-শিক্ষার্থী ঢাকার বাইরে চলে গেছে। এ কারণে আজ কোনো ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা সম্ভব হয়নি। তবে ২১ অক্টোবর বিদ্যালয় খুললে শিক্ষার্থীদের নিয়ে দিবসটি পালন করা হবে।

অপরদিকে মিরপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়েও দেখা গেছে একই অবস্থা। বিদ্যালয়ের মাঠে বহিরাগত বিভিন্ন বয়সের কিছু মানুষ খেলাধুলা করলেও বিদ্যালয়ের ভেতরে কাউকে পাওয়া যায়নি। এটি ছিল তালাবন্ধ। প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক নাসরিন সুলতানার সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

jagonews24

মিরপুর ২ নম্বরে ন্যাশনাল (সকাল) বাংলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা গেছে, শেখ রাসেল দিবস উদযাপনে অভিভাবকদের মোবাইলে কল করে শিক্ষার্থীদের স্কুলে আসতে বলা হয়। ফলে প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণিতে ৩০ জনের মতো শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিল। তাদের মধ্যে কুইজ প্রতিযোগিতা, শেখ রাসেল সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। তবে এখানে তৈরি করা হয়নি দেয়ালিকা।

জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শিরীন আক্তার জাগো নিউজকে বলেন, অনেক দেরি করে নির্দেশনায় দেওয়ায় সব কর্মসূচি পালন করা সম্ভব হয়নি। অল্প সময়ের মধ্যে যতটুকু সম্ভব হয়েছে তাই আয়োজন করা হয়েছে। সুযোগ মতো শেখ রাসেল দেয়ালিকা করা হবে বলে জানান তিনি।

শেরে বাংলা আদর্শ মহিলা কলেজে শুধু আলোচনা সভা আয়োজন করা হয়েছিলো বলে জানিয়েছেন কলেজের উপাধ্যক্ষ আলী আহসান খান। তিনি বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পূজার বন্ধ থাকায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের পাওয়া যায়নি। যাদের পাওয়া গেছে তাদের নিয়ে আলোচনা সভা করা হয়।

jagonews24

পাশেই শেরে বাংলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় দেখা গেছে তালা লাগানো। তবে রাজধানীর শীর্ষ পর্যায়ের অনেক প্রতিষ্ঠানে এ দিবসে নানা ধরনের আয়োজন করতে দেখা গেছে।

জানতে চাইলে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের পরিচালক (বিদ্যালয়) অধ্যাপক বেলাল হোসাইন জাগো নিউজকে বলেন, রাসেল দিবসকে ‘ক’ শ্রেণিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, তাই এটিকে হালকাভাবে দেখার সুযোগ নেই। আমরা খোঁজ-খবর নেব, যদি কেউ এ দিবস পালন না করে থাকে তবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে ১১-২০ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে দুর্গাপূজার ছুটি থাকবে। স্কুল-কলেজে ছুটি ঘোষণার পর শেখ রাসেল দিবস উদযাপনের কর্মসূচির নির্দেশনা জারি করে মাউশি।

এতে বলা হয়, ১৮ অক্টোবর, শেখ রাসেল দিবস। এ উপলক্ষে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ‘শেখ রাসেল দেয়ালিকা’ করার জন্য একটি স্থায়ী স্থান নির্ধারণ করতে হবে। বিভিন্ন জাতীয় দিবস ও উৎসবকে কেন্দ্র করে ওই স্থানে কবিতা, সৃষ্টিশীল লেখা ও ছবি উপস্থাপন করা হবে। প্রথম দেয়ালিকা প্রকাশিত হবে অক্টোবরের মধ্যে এবং তার প্রতিপাদ্য হবে ‘শেখ রাসেল দিবস’।

এমএইচএম/জেডএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]